×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বালুরঘাট-কোচবিহারে পৌঁছল টিকা, পর্যাপ্ত ডোজ না পাওয়ার অভিযোগ উত্তর দিনাজপুরের

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়গঞ্জ, বালুরঘাট এবং কোচবিহার ১৪ জানুয়ারি ২০২১ ২৩:৩৯
—নিজস্ব চিত্র।

—নিজস্ব চিত্র।

টিকাকরণ কর্মসূচি শুরুর আগেই তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিল উত্তর দিনাজপুর জেলায়। টিকা সরবরাহ করা হলেও তা পর্যাপ্ত সংখ্যক নয় বলে অভিযোগ জেলা স্বাস্থ্য দফতরের।

বুধবার রাতেই জেলায় করোনার ১৭ হাজার টিকা এসে পৌঁছেছে। তবে জেলার স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য তা প্রায় অর্ধেক বলে দাবি করেছেন উত্তর দিনাজপুরের স্বাস্থ্যকর্তারা। বৃহস্পতিবার কালিয়াগঞ্জ স্টেট জেনারেল হাসপাতাল থেকে টিকাবোঝাই গাড়ি ফিরে চলে যায়৷ অন্য দিকে, রায়গঞ্জ ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকা পৌঁছয়নি। কালিয়াগঞ্জ স্টেট জেনারেল হাসপাতাল, রায়গঞ্জ ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র-সহ আরও বেশ কয়েক যায়গায় কোথাও টিকা ফিরে এসেছে। কোথাও বা আবার টিকা পাঠানোই হয়নি বলে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর৷

কালিয়াগঞ্জ ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য আধিকারিক আলতামাস আলি বলেন, ‘‘কালিয়াগঞ্জে ভ্যাকসিন আসবে না বলে বুধবার রাতে জানানো হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সেই গাড়ি স্বাস্থ্য দফতরে চলে আসে। আমরাও প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু শেষ মুহূর্তে জেলা থেকে নির্দেশ আসায় ওই টিকাবোঝাই গাড়ি ইটাহারে নিয়ে যাওয়া হয়। কী কারণে এমনটা হল, তা বলতে পারব না।’’ তবে কেনও এই পরিস্থিতি তৈরি হল, তা নিয়ে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের তরফে কোনও সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

Advertisement



পুলিশি প্রহরায় করোনার টিকা। —নিজস্ব চিত্র।

উত্তর দিনাজপুর জেলায় টিকাকরণ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হলেও দক্ষিণ দিনাজপুর দেখা গিয়েছে প্রায় উল্টো চিত্র। এই জেলায় পুলিশি প্রহরায় করোনার টিকা এসে পৌঁছেছে বুধবার রাতেই। কলকাতা থেকে মালদহে টিকা আসার পর সেখান থেকে রাতেই তা পৌঁছয় দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাটে।

আরও পড়ুন: ১০ হাজার ছাড়াল রাজ্যে মোট মৃত্যু, লাগাম সংক্রমণের হারে

আরও পড়ুন: চূড়ান্ত ভোটার তালিকা আগামিকাল, বয়স্কদের জন্য বাড়িতে পোস্টাল ব্যালটের ভাবনা

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, বালুরঘাটে টিকার সাড়ে ২০ হাজার ডোজ এসেছে। বুধবার রাতে টিকাবোঝাই ভ্যান এলে সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সুকুমার দে, জেলা পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত-সহ অন্যান্য আধিকারিক। জেলা পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত বলেন, ‘‘ মালদহ থেকে পুলিশি প্রহরায় ভ্যাকসিন আনা হয়েছে। স্টোর রুমেও পুলিশি প্রহরা থাকবে।’’

জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক বলেন, ‘‘সাড়ে ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় এই ডোজগুলি আনা হয়েছে। সেই সঙ্গে টিকাকরণের জন্য ৪২ হাজার সিরিঞ্জও এসেছে। স্টোররুমে নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় টিকার ডোজগুলি রাখার বন্দোবস্ত করা হয়েছে।’’

বালুরঘাট ছাড়াও বৃহস্পতিবার কোচবিহারে এসেছে করোনার টিকা। জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, প্রথম ধাপে কোচবিহারের জন্য সাড়ে ১৮ হাজার টিকা এসেছে। শনিবার ৯টি কেন্দ্র থেকে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হবে। শুক্রবারই ওই কেন্দ্রগুলিতে টিকা পাঠানো হবে। এক একটি কেন্দ্রে ১০০ জন করে টিকা পাবেন। সপ্তাহে চার দিন এই কর্মসূচি চলবে। টিকার সুরক্ষিত রাখতে রয়েছে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য দফতরের তরফে মেটারনিটি অ্যান্ড চাইল্ড হেল্‌থ অফিসার দিলীপ দে বলেন, ‘‘প্রথম ধাপে সাড়ে ১৮ হাজার ভ্যাকসিন এসেছে। তবে বর্তমানে ১৬ হাজার জন টিকা পাবেন । সরকারের সমস্ত গাইডলাইন মেনেই কাজ করা হচ্ছে। সপ্তাহে যে চার দিন টিকা দেওয়া হবে, সেই দিনগুলি স্থানীয় স্তরে ঠিক করে নেওয়া হবে। শনিবার থেকে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত টিকাকরণ চলবে।’’

Advertisement