×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

সংক্রমণের হার বৃদ্ধিতে ফের রাজ্যে করোনা প্রবণতায় কিছুটা উদ্বেগ, সুস্থতা টানা বাড়ছেই 

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২২:৫৫
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

রাজ্যের করোনা সংক্রমণের প্রবণতায় ফের উদ্বেগ বাড়ল সামান্য। নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা প্রায় ৫ হাজার কমলেও সেই হারে নামল না সংক্রমণের হার। যদিও মোট আক্রান্তের সংখ্যা সংখ্যা কমেছে অনেকটাই। মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। বেড়েছে সুস্থতার হারও।

সোমবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে ১৪৮ জনের। রবিবার এই সংখ্যা ছিল ১৮২। অর্থাৎ ৩৪ জন কম আক্রান্ত হয়েছেন। রবিবারের সংখ্যা মিলিয়ে রাজ্যে মোট এ পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫ লক্ষ ৭৩ হাজার ৯১০।

দৈনিক নতুন আক্রান্তের সংখ্যায় এই কমতির কারণ অবশ্য সংক্রমণ কমে যাওয়া নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। বরং নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় ৫ হাজার কমে যাওয়াই প্রধান কারণ। সেই কারণেই সংক্রমণের হারও বেড়েছে রবিবারের তুলনায়। ২৪ ঘণ্টায় যত সংখ্যক নমুনা পরীক্ষা হয়, তার মধ্যে যতগুলি রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তার শতকরা হারকেই ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার বলা হয়। সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী রাজ্যে সংক্রমণের হার ০.৯৮ শতাংশ। রবিবার যা ছিল 0.৯১ শতাংশ। রবিবার নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ছিল ২০ হাজার ৩। সোমবার সেই সংখ্যা কমে হয়েছে ১৫ হাজার ১১২।

Advertisement

রাজ্যের করোনা যুদ্ধে একমাত্র টানা স্বস্তি সুস্থতায়। এই হার ক্রমাগত ঊর্ধ্বমুখী। সোমবারও সেই প্রবণতা অব্যাহত। সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী এই হার ৯৭.৬১ শতাংশ। রবিবার এই হার ছিল ৯৭.৬১ শতাংশ। রাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় কোভিড মুক্ত হয়েছেন ২৩১ জন। এই নিয়ে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েও সুস্থ হয়েছেন মোট ৫ লক্ষ ৬০ হাজার ২১৯ জন। এই মুহূর্তে রাজ্যে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৪৪০। রবিবার এই সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৫২৫।

রবিবার করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল ৩ জনের। সোমবার এই সংখ্যা কমে হয়েছে ২। এই নিয়ে রাজ্যে মোট কোভিডের বলি হলেন ১০ হাজার ২৫১ জন। এই দু’জন পশ্চিম বর্ধমান এবং উত্তর ২৪ পরগনার বাসিন্দা। অন্য দিকে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নতুন আক্রান্ত হয়েছেন কলকাতায়— ৪৮ জন। উত্তর ২৪ পরগনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ জন। রাজ্যের আর কোনও জেলায় নতুন কোভিড আক্রান্ত দুই অঙ্কে পৌঁছয়নি।

Advertisement