Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
covid 19

দত্তাবাদ, আমডাঙা, মধ্যমগ্রামে শুরু টিকার মহড়া, পর্যবেক্ষণ সফটওয়্যারে

ইউনিসেফ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, কেন্দ্র এবং রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মহড়া। ৩ জায়গায় ২৫ জন করে স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন।

রাজ্যের ৩ জায়গায় চলছে ড্রাই রান। শনিবার— নিজস্ব চিত্র

রাজ্যের ৩ জায়গায় চলছে ড্রাই রান। শনিবার— নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ জানুয়ারি ২০২১ ১১:১৩
Share: Save:

শনিবার সকাল থেকে করোনা টিকার ড্রাই রান বা মহড়া শুরু হল রাজ্যের ৩ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। দত্তাবাদের প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র, আমডাঙা এবং মধ্যমগ্রামে এই ড্রাই রান হচ্ছে গ্রামীণ হাসপাতালে। এই ৩ জায়গায় বিধিনিষেধ মেনে মহড়া শুরু হয়েছে। শনিবার এই ৩ জায়গায় ২৫ জন স্বাস্থ্যকর্মীকে ‘ডামি’ বা ‘নকল’ টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

নির্দিষ্ট দূরত্ববিধি মেনেই ওই ২৫ জনকে বসিয়ে রাখা হয়েছে। তাঁদের পরিচয়পত্র দেখা হচ্ছে। নাম নথিভুক্ত হচ্ছে। হচ্ছে অন্য শারীরিক পরীক্ষাও। ওই স্বাস্থ্যকর্মীদের ৫ জন করে এক একটি দলে ভাগ করে তাঁদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিশেষ একটি সফটওয়্যার অ্যাপের মাধ্যমে গোটা বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। স্কাস্থ্যকর্মীদের নাম, তাঁদের পরিচয় ইত্যাদি তথ্য ওই সফটওয়্যারের মধ্যে সঞ্চিত থাকবে। টিকা নেওয়ার পরই যিনি তা নিচ্ছেন তাঁর কাছে এসএমএস যাবে। টিকার পরবর্তী ডোজ কবে নিতে হবে, তা-ও ওই সফটওয়্যার জানিয়ে দেবে। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, গণহারে টিকা দেওয়ার সময় কাদের টিকাকরণ হল এবং তাঁদের পরবর্তী টিকার ডোজ কবে নিতে হবে, সে সবই ওই সফটওয়্যার জানিয়ে দেবে।

আরও পড়ুন: সবার জন্য নয়, বিনামূল্যে টিকা ৩০ কোটির, জানালেন নীতি আয়োগ প্রধান

শনিবারের মহড়ায় ‘নকল’ টিকা দেওয়া হলেও নিয়ম মেনে অংশগ্রহণকারীদের অন্য ঘরে পর্যবেক্ষণের জন্য রাখা হয়েছে। ইউনিসেফ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু), কেন্দ্র এবং রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে হচ্ছে এই মহড়া।

শনিবার মধ্যমগ্রামে চলছে কোভিড ভ্যাক্সিনের ড্রাই রান। সেখানে স্বাস্থ্যকর্মীদের লাইন— নিজস্ব চিত্র

এই টিকা প্রদানের মহড়া শুরু হওয়ার পর ওই সব অঞ্চলের স্থানীয় বাসিন্দারা ভেবেছিলেন সত্যিই টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের কর্মীরা অবশ্য সেই ভুল ভাঙিয়েছেন।

আরও পড়ুন: কারা প্রথম টিকা পাবেন, কত দাম হবে, জানালেন এমস-এর ডিরেক্টর

কোভিড রুখতে শুক্রবার, বছরের প্রথমদিনে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তৈরি বিশেষজ্ঞ প্যানেলের ছাড়পত্র পাওয়ার পর অক্সফোর্ডের এই কোভিশিল্ড টিকাকে দেশের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল অব ইন্ডিয়া’-র কাছে পাঠানো হবে। তাদের ছাড়পত্র পেলেই শুরু হয়ে যাবে টিকা দেওয়া। প্রসঙ্গত, অ্যাস্ট্রাজেনেকা এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ গবেষণায় তৈরি ‘কোভিশিল্ড’ ভারতে তৈরি করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। ভারত বায়োটেক আইসিএমআর-এর সঙ্গে যৌথ ভাবে তৈরি করছে কোভ্যাক্সিন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE