Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩
CPIM

কেন্দ্র-রাজ্যকে তোপ কর্মচারী সমাবেশে

১০০ দিনের কাজে যে কর্মসংস্থানের সুযোগ ছিল, তা-ও এখন সঙ্কুচিত। এক দিকে কেন্দ্র টাকা কমিয়ে দিচ্ছে, অন্য দিকে রাজ্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে।

রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারকে তোপ সুজন চক্রবর্তীর।

রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারকে তোপ সুজন চক্রবর্তীর। — ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ ২৩:৪৭
Share: Save:

সাধারণ, প্রান্তিক মানুষের জন্য সুরাহার ব্যবস্থা করার ক্ষেত্রে কেন্দ্র ও রাজ্যের দুই সরকারই আন্তরিক নয় বলে অভিযোগ উঠল সরকারি কর্মচারীদের সমাবেশে। পশ্চিমবঙ্গ সেটেলমেন্ট সমিতির ডাকে শুক্রবার রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে ওই সমাবেশে সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুজন চক্রবর্তী কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করেছেন দ্রব্যমূল্যের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থানের অভাবের প্র‌শ্নে। তাঁর মতে, ১০০ দিনের কাজে যে কর্মসংস্থানের সুযোগ ছিল, তা-ও এখন সঙ্কুচিত। এক দিকে কেন্দ্র টাকা কমিয়ে দিচ্ছে, অন্য দিকে রাজ্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে। শূ্ন্য পদে নিয়োগ এবং মহার্ঘ ভাতা-সহ পাওনার দাবিতে ভূমি দফতরের কর্মীদের সংগঠন এ দিনের সমাবেশের উদ্যোক্তা ছিল। ভূমি দফতরের প্রসঙ্গ টেনেই সুজনবাবু বলেন, ‘‘এক সময়ে দফতরের মন্ত্রী ছিলেন বিনয় চৌধুরী। কর্মীদের সম্মান ছিল। এখন দফতরের মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দফতরের অনুমোদিত পদ প্রায় ৩২ হাজার, তার মধ্যে লোক রয়েছে হাজার আটেক পদে। পঞ্চায়েতের যে কাজ করার কথা, সেটাই ‘দুয়ারে সরকার’ নাম করে চালানো হচ্ছে!’’ রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ অবশ্য বলেন, ‘‘এখন অনেক প্রকল্প আছে, যা সিপিএম জমানায় ছিল না। সে সবের আবেদনপত্র পূরণ করা-সহ নানা কাজ হচ্ছে ‘দুয়ারে সরকার’ শিবিরে। পঞ্চায়েতে যেতে হচ্ছে না, পঞ্চায়েতই চলে আসছে মানুষের কাছে। পঞ্চায়েত কাজ করার পরেও তো আরও কিছুর জায়গা থাকে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.