Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

আমপানের ধাক্কা সামলাতে এ বার সেনার সাহায্য নিল রাজ্য

আমপান-বিধ্বস্ত কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে সেনা জওয়ানরা রাস্তা থেকে গাছ সরিয়ে পরিকাঠামো পুনরুদ্ধারের কাজ করছেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ মে ২০২০ ১৮:৫৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
শহর কলকাতার রাস্তায় নামল সেনা।

শহর কলকাতার রাস্তায় নামল সেনা।

Popup Close

আমপান (প্রকৃত উচ্চারণ উম পুন)-এর ধাক্কা সামলাতে এ বার সেনার সাহায্য নিল রাজ্য সরকার। সেনার সাহায্য চাওয়া হয়েছে বলে শনিবার স্বরাষ্ট্র দফতরের তরফে টুইট করে জানানো হয়। রাজ্য সরকারের আহ্বানে সাড়া দিয়ে তড়িঘড়ি কাজে নামে ভারতীয় সেনাবাহিনী। আমপান-বিধ্বস্ত কলকাতায় ইতিধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন সেনা জওয়ানরা। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে সেনা জওয়ানরা রাস্তা থেকে গাছ সরিয়ে পরিকাঠামো পুনরুদ্ধারের কাজ করছেন। সেনার পাশাপাশি রেল ও বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকেও সাহায্য চাওয়া হয়েছে বলে স্বরাষ্ট্র দফতর জানায়। সেই সঙ্গে বেসরকারি সংস্থাগুলিকেও এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানিয়েছে রাজ্য সরকার।

ঘূর্ণিঝড় আমপানের জেরে তছনছ হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, কলকাতার বিভিন্ন এলাকা। বহু জায়গাতেই বেহাল হয়ে পড়েছে রাস্তা, বিদ্যুৎ, জল, নিকাশির মতো গুরুত্বপূর্ণ পরিকাঠামো। এখনও অনেক জায়গাতেই পরিষেবাগুলি সচল করা যায়নি। এই পরিস্থিতিতে এ বার কেন্দ্রের কাছে সেনা সাহায্য চেয়েছিল রাজ্য সরকার।

রাজ্যের এই টুইটের পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এক মুখপাত্রও টুইট করে জানিয়ে দেন, পশ্চিমবঙ্গের ছ’টি জেলায় উদ্ধারকাজ চালানোর জন্য এনডিআরএফের আরও ১০টি দল পাঠানো হবে। সব মিলিয়ে এনডিআরএফের ৩৬টি দল এ রাজ্যে কাজ করবে।

Advertisement


আরও পড়ুন: বিদ্যুৎ নেই, জলের হাহাকার, দক্ষিণ কলকাতা জুড়ে অবরোধ-বিক্ষোভ

আরও পড়ুন: উপসর্গ না থাকলে কোয়রান্টিনে যেতে হবে না অন্তর্দেশীয় বিমানযাত্রীদের, বাধ্যতামূলক আরোগ্য সেতু অ্যাপ

আরও পড়ুন: পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্কট ঘোচাতে আরও অনেক কিছু করতে পারতাম: নীতি আয়োগের সিইও

বুধবার রাজ্যে আছড়ে পড়েছিল আমপান। বহু জায়গায় কার্যত তাণ্ডব চালিয়েছিল ওই ঘূর্ণিঝড়। ঝড় চলে যাওয়ার পর মাঝখানে কেটে গিয়েছে তিনটি দিন। কিন্তু পরিস্থিতি এখনও পর্যন্ত এতটাই ভয়াবহ যে অনেক জায়গাতেই বিভিন্ন পরিষেবা সচল করা যায়নি। এর ফলে জায়গায় জায়গায় বিক্ষোভ দেখা দিচ্ছে। উদ্ধারকাজ আরও দ্রুত চালাতেই এ বার সেনার সাহায্য চেয়েছে রাজ্য।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement