Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
West Bengal News

রোজভ্যালির টাকা পাচার, গ্রেফতার বাঙালি ব্যবসায়ী, হদিশ বিপুল বেহিসেবি সম্পত্তির

শনিবার এই ব্যবসায়ীর মেট্রোপলিটনের বাড়িতে তল্লাশি চালায় ইডি। তার পর তাঁকে টানা জেরার পর রবিবার গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রেফতার ব্যবসায়ী সুদীপ্ত রায়চৌধুরী। —নিজস্ব চিত্র

গ্রেফতার ব্যবসায়ী সুদীপ্ত রায়চৌধুরী। —নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ নভেম্বর ২০১৮ ১৩:৩৫
Share: Save:

রোজভ্যালি তদন্তে এবার এক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। সুদীপ্ত রায়চৌধুরী নামে এই ব্যাবসায়ীর বিপুল পরিমাণ সম্পত্তির হদিশ পাওয়া গিয়েছে, যার সঙ্গে আয়ের কোনও সঙ্গতি পাওয়া যায়নি।

ইডি সূত্রে খবর, সুদীপ্ত রায়চৌধুরী নামে এই ব্যবসায়ী রোজভ্যালির অনেক লেনদেনের সঙ্গে যেমন যুক্ত, তেমনি সম্প্রতি ইডি এবং সিবিআইয়ের নাম ব্যবহার করে তোলাবাজিও করেছেন।

শনিবার এই ব্যবসায়ীর মেট্রোপলিটনের বাড়িতে তল্লাশি চালায় ইডি। তার পর তাঁকে টানা জেরার পর রবিবার গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত নেয়।

ইডি আধিকারিকদের ইঙ্গিত, এই ব্যবসায়ীকে জেরা করে রোজভ্যালির একাধিক বেআইনি লেনদেনের হদিশ মিলবে।

উপরে বাঁ দিকে: শতাব্দী রায়ের সঙ্গে। উপরে ডান দিকে: মুকুল রায়ের সঙ্গে। নীচে বাঁ দিকে: শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে। নীচে ডান দিকে: ডিআইজি সিআইডি নিশাত পারভেজ (বাঁ দিক থেকে তৃতীয়)-এর সঙ্গে অভিযুক্ত ব্যবসায়ী সুদীপ্ত (বাঁ দিক থেকে চতুর্থ)।

ইডি সূত্রে খবর, শাসক দলের একাধিক শীর্ষ নেতার ঘনিষ্ঠ বলে পরিচয় দিতেন এই ব্যবসায়ী। অনেক পুলিশ কর্তার সঙ্গেও তাঁর ঘনিষ্ঠতা ছিল দেখার মত। বাম আমলে সিপিএমের দক্ষিণ ২৪ পরগনার এক দাপুটে নেতার ‘কাছের লোক’ হওয়ার সুবাদে কলকাতা পুলিশের একাধিক শীর্ষ কর্তার সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয়।

আরও পড়ুন: প্রেম করে বিয়ের দেড় বছরের মধ্যে বাগুইআটিতে স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারলেন স্বামী!

সোনারপুর এবং বারুইপুর এলাকায় কয়েকটি আবাসন প্রকল্পের কাজ শুরু করেন এই সুদীপ্ত। পরবর্তী সময়ে শাসক দলের একাধিক নেতার সঙ্গে তাঁকে দেখা গিয়েছে। অন্য দিকে ইডির প্রাক্তন সহকারি অধিকর্তা মনোজ কুমারের সঙ্গেও তাঁর ভাল যোগাযোগ ছিল। মনোজ কুমার রোজভ্যালি মামলার তদন্তকারী অফিসার ছিলেন। পরে তোলাবাজির অভিযোগে তাঁকে কলকাতা পুলিশ গ্রেফতার করেছিল।

আরও পডু়ন: ‘পাশে আছি’, মমতার বার্তা নিয়ে তিনসুকিয়ায় নিহতদের বাড়িতে ডেরেকরা

ইডি সূত্রে খবর, এই ব্যবসায়ী নিজেকে চিকিৎসক বলেও পরিচয় দেন। তবে তাঁর চিকিৎসক হিসাবে কোনও রেজিস্ট্রেশন পাওয়া যায়নি। তদন্তকারীদের দাবি, রোজভ্যালির বেশ কিছু নতুন সম্পত্তি এবং লেনদেনের বিষয়ে জানা যাবে এই ব্যবসায়ীর কাছ থেকে। কারণ রোজভ্যালি মামলা শুরু হওয়ার পর গ্রেফতারের আগে গৌতম কুণ্ডু রোজভ্যালির একটা বড় অঙ্ক সরিয়ে দিয়েছে বলে অনুমান ইডির। সেই পাচারের সঙ্গে এই ব্যবসায়ীর যোগ আছে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। ইডি সূত্রে খবর, এই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে পিএমএলএ তেই মামলা করা হবে, অর্থ পাচারের অভিযোগে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE