Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

নথিতে অখুশি, শুভাকে ইডি-র তলব সোমবার

চ্যানেল বিক্রি নিয়ে তাঁর দেওয়া তথ্যে সন্তুষ্ট না হয়ে তৃণমূল-ঘনিষ্ঠ চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্নকে ফের ডেকে পাঠাল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। ব

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৪ নভেম্বর ২০১৪ ০৩:৩২
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

চ্যানেল বিক্রি নিয়ে তাঁর দেওয়া তথ্যে সন্তুষ্ট না হয়ে তৃণমূল-ঘনিষ্ঠ চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্নকে ফের ডেকে পাঠাল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। বৃহস্পতিবার নোটিস পাঠিয়ে আগামী সোমবার তাঁকে ইডি-র দফতরে হাজির হতে বলা হয়েছে।

‘এখন সময়’ নামে একটি চালু না-হওয়া চ্যানেল সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনকে বিক্রি করেছিলেন শুভাপ্রসন্নবাবু। সেই সুবাদে এর আগে তাঁকে এক দফা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। তখন নিজের বক্তব্য জানানোর পাশাপাশি ইডি-র তদন্তকারীদের বেশ কিছু নথিপত্রও দিয়ে গিয়েছিলেন শুভাপ্রসন্ন। কিন্তু সেই বক্তব্য খতিয়ে দেখে সন্তুষ্ট হতে পারেনি ইডি। ইতিমধ্যে ওই চ্যানেলের দফতরে তল্লাশিও চালানো হয়। সব মিলিয়ে চ্যানেল বিক্রির বিষয়ে নতুন করে কিছু প্রশ্ন উঠেছে বলে ইডি সূত্রে খবর।

যেমন, গত ১৪ অক্টোবর ইডির দফতরে হাজির হয়ে শুভাপ্রসন্ন জানিয়েছিলেন, মোট সাড়ে ছ’কোটি টাকা তিনি চ্যানেলটি সারদা-কর্তাকে বিক্রি করেছিলেন। ইডি দফতর থেকে বেরিয়ে নিজেই সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান তিনি। কিন্তু এর আগে রাজ্য সরকারের গড়া বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) সুপ্রিম কোর্টে হলফনামা দিয়ে জানিয়েছিল, ওই চ্যানেল কিনতে সারদার খরচ হয়েছিল ১৪ কোটি টাকা। ইডি সূত্রে বলা হচ্ছে, দু’টি বয়ানের এই পার্থক্য যেমন রয়েছে, তেমনই শুভাপ্রসন্নের দেওয়া নথিতেও কিছু গলদ তদন্তকারীদের নজরে এসেছে। সেই কারণেই ফের তাঁকে ডেকে পাঠানো হচ্ছে।

Advertisement

সারদা কেলেঙ্কারি নিয়ে এ দিন ইডি-র জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়েছেন রেল পর্যটন নিগমের (আইআরসিটিসি) কর্তারাও। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীন ‘ভারততীর্থ’ প্রকল্পে সারদাকে এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ করেছিল নিগম। নিগমের লোগো ব্যবহার করে সারদা ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস বাজার থেকে প্রচুর টাকা তুলেছিল বলেও অভিযোগ। তদন্তকারীদের দাবি, টেন্ডার ছাড়াই ওই চুক্তি হয়েছিল বলে তাঁরা জানতে পেরেছেন। সেই বিষয়ে তথ্য জানতেই বৃহস্পতিবার নিগমের কর্তাদের ডেকে পাঠানো হয়েছিল।

এ দিন বেলা সওয়া এগারোটা নাগাদ নিগমের তিন কর্তা সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে ইডি-র দফতরে হাজির হন। ঘণ্টা তিনেক তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন তদন্তকারীরা। কোন যোগ্যতায় সারদাকে এজেন্ট হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছিল, সারদাকে এজেন্সি পাইয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে মন্ত্রকের শীর্ষস্তর থেকে কোনও চাপ এসেছিল কি না, ইত্যাদি বিষয়ে ওই কর্তাদের প্রশ্ন করেছেন তদন্তকারীরা। সারদা যে আইআরসিটিসি-র লোগো ব্যবহার করে বাজার থেকে টাকা তুলছে, সেটা নিগম জানত কি না, রেলের হয়ে টিকিট বিক্রি বাবদ সারদা কত টাকা কমিশন হিসেবে পেয়েছিল, তা-ও জানতে চাওয়া হয়। রেলের সঙ্গে সারদার ব্যাঙ্ক লেনদেনের নথিও জমা নেওয়া হয়েছে হলে ইডি সূত্রের খবর।

এ দিন ইডি দফতরে হাজির হয়েছিলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মাতঙ্গ সিংহের প্রাক্তন স্ত্রী মনোরঞ্জনা সিংহও। অসমে মিডিয়া ব্যবসা নিয়ে সারদার সঙ্গে তাঁর ২৫ কোটি টাকার চুক্তি হয়েছিল। সেই প্রসঙ্গেই এর আগে মনোরঞ্জনাকে একাধিক বার জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল ইডি এবং সিবিআই জেরা করেছিল। ইডি সূত্রের খবর, চুক্তি সংক্রান্ত বেশ কিছু নথি চেয়ে তাঁকে ফের ডেকে পাঠানো হয়েছিল। এ দিন বেলা বারোটা নাগাদ মনোরঞ্জনা একটি ট্যাক্সি নিয়ে ইডি দফতরে আসেন। কিন্তু গাড়ি থেকে না-নেমেই তিনি চলে যান। বিকেল পাঁচটা নাগাদ ফের তিনি ইডি দফতরে আসেন। দফতরে ঢোকার আগে তিনি বলেন, “তদন্তে সহযোগিতা করার জন্য কিছু নথি জমা দিতে এসেছি।”

ইডি সূত্রের খবর, মনোরঞ্জনাকে নথি জমা দিতে ডাকলেও তাঁকে বেশ কিছু ক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়। তাঁর বয়ানও রেকর্ড করেন তদন্তকারীরা।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement