×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ মে ২০২১ ই-পেপার

আগামী মাসে খুলছে গোন্দলপাড়া জুটমিলও

নিজস্ব সংবাদদাতা 
কলকাতা ১৬ অক্টোবর ২০২০ ০৪:৩৫
নর্থ ব্রুক জুট মিল খোলার সিদ্ধান্ত হওয়ায় চাঁপদানিতে অভিনন্দন সমাবেশ। নিজস্ব চিত্র।

নর্থ ব্রুক জুট মিল খোলার সিদ্ধান্ত হওয়ায় চাঁপদানিতে অভিনন্দন সমাবেশ। নিজস্ব চিত্র।

চাঁপদানির নর্থ ব্রুকের পরে দরজা খুলতে চলেছে হুগলি শিল্পাঞ্চলের আরও একটি বন্ধ জুটমিলের। শ্রম দফতরের আলোচনায় ঠিক হয়েছে, দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকা গোন্দলপাড়া জুটমিল ফের চালু হবে পুজোর পরে, আগামী ১ নভেম্বর থেকে। বিরোধী বাম ও কংগ্রেস এই সিদ্ধান্তের পিছনে গণতান্ত্রিক শ্রমিক আন্দোলনের জয় দেখছে এবং রাজ্য সরকারকে ধন্যবাদ জানাচ্ছে। আর এক বিরোধী বিজেপি অবশ্য এই জুটমিল খোলার পিছনে কেন্দ্রীয় সরকারের কৃতিত্ব দাবি করছে।

জুটমিল খোলার দাবিতে গত সপ্তাহেই তেলিনীপাড়ায় সভা করেছিলেন বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান, বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী এবং বাম ও কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের নেতৃত্ব। গোন্দলপাড়া জুটমিলের ব্যাপারে শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটকের সঙ্গে কথা বলেছিলেন মান্নান ও সুজনবাবু। শ্রমমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, অনেক দিন বন্ধ থাকায় কিছু বিষয়ের নিষ্পত্তি করতে একটু সময় লাগছে। সেই মতোই আগামী মাসের গোড়ায় মিল খোলার সিদ্ধান্ত হয়েছে। নর্থ ব্রুকের শ্রমিক ও আন্দোলনকারী নেতৃত্বকে নিয়ে বৃহস্পতিবার এলাকায় ‘অভিনন্দন মিছিলে’ ছিলেন মান্নান, সিটু নেতা তীর্থঙ্কর রায়েরা। সেখানেই মান্নান বলেন, ‘‘অনেক কষ্ট করে দিন কাটিয়েও শ্রমিকেরা গণতান্ত্রিক পথে আন্দোলন করেছেন। গোন্দলপাড়া জুটমিল সেই পথেই খুলছে। শ্রমমন্ত্রী ও শ্রম দফতরের আধিকারিকদের চেষ্টাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’’

হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় অবশ্য দাবি করেছেন, ‘‘রাজ্যের সঙ্গে অনেক লড়াই করে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে জুটমিল খোলার ব্যবস্থা হয়েছে। হুগলির তৈরি পাটের ব্যাগ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়বে। কেউ যদি বাধা দেয়, তা হলে কেন্দ্রীয় সরকার কড়া ব্যবস্থা নেবে।’’

Advertisement
Advertisement