Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

প্রস্তাবিত জলপ্রকল্পের জমিতে ডিএম

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বলাগড় এবং পাশের পান্ডুয়া ব্লকে আর্সেনিক সমস্যা দীর্ঘদিনের। ওই বিষ-জলের বহু নলকূপ ইতিমধ্যে প্রশাসনের তরফে ব

নিজস্ব সংবাদদাতা
সোমরা ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ০১:০০
Save
Something isn't right! Please refresh.
মানচিত্রে চোখ।

মানচিত্রে চোখ।

Popup Close

দক্ষিণবঙ্গের সবচেয়ে বড় জলপ্রকল্পটি হতে চলেছে হুগলির বলাগড়ের সোমরা-১ পঞ্চায়েতে। বৃহস্পতিবার মহিপালপুর পঞ্চায়েতে জন-শুনানি এবং ব্লকের প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভা শেষে জেলাশাসক (ডিএম) ওয়াই রত্নাকর রাও প্রস্তাবিত জলপ্রকল্পের জমি পরিদর্শনে যান। তিনি জানান, প্রকল্পের জন্য মোট ৮ একর জমি প্রয়োজন। কিছু জমি নিয়ে জট আছে। শীঘ্রই তা মিটিয়ে ফেলা হবে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বলাগড় এবং পাশের পান্ডুয়া ব্লকে আর্সেনিক সমস্যা দীর্ঘদিনের। ওই বিষ-জলের বহু নলকূপ ইতিমধ্যে প্রশাসনের তরফে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তা সত্ত্বেও গ্রামবাসীদের কেউ কেউ নিষেধাজ্ঞা উড়িয়েও ওই বিষ-জল খেতে বাধ্য হচ্ছেন। দুই ব্লকের সর্বত্র যাতে আর্সেনিকমুক্ত পরিস্রুত পানীয় জল সরবরাহ করা যায়, সে কারণেই সোমরা-১ পঞ্চায়েতে ৫২০ কোটি টাকার জলপ্রকল্প গড়ছে রাজ্য সরকার।

জেলাশাসকদের দাবি, দক্ষিণবঙ্গে এতবড় জলপ্রকল্প আর নেই। গঙ্গার জল পরিশোধন করে পাইপলাইনের মাধ্যমে দুই ব্লকের সর্বত্র সরবরাহ করা হবে। ইতিমধ্যে অর্থ অনুমোদন হয়ে গিয়েছে। প্রয়োজনীয় চার একরের মধ্যে অনেকটা জমিও পাওয়া গিয়েছে। বাকি জমি নিয়ে গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথার্বাতা চলছে। নির্দিষ্ট কমিটি বিষয়টি দেখছে। এ দিনের জন-শুনানিতেও অনেকে আর্সেনিক সমস্যা নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন। প্রকল্পটি হয়ে গেলে দুই ব্লকের আর্সেনিক সমস্যা পুরোপুরি মিটে যাবে বলে জানান জেলাশাসক।

Advertisement


Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement