Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

নৈটি রোড সংস্কার নিয়ে পরিদর্শন মহকুমাশাসকের

রাস্তা জুড়ে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত। কোনও জায়গায় গর্তে জল জমে পুকুরের চেহারা নিয়েছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কোন্নগর ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৪:৪২
Save
Something isn't right! Please refresh.
বেহাল: এই রাস্তা সংস্কারের দাবি গ্রামবাসীদের। ছবি: দীপঙ্কর দে

বেহাল: এই রাস্তা সংস্কারের দাবি গ্রামবাসীদের। ছবি: দীপঙ্কর দে

Popup Close

বেহাল নৈটি রোড সংস্কারের কাজ নিয়ে অবশেষে প্রশাসনিক তৎপরতা শুরু হল। বৃহস্পতিবার প্রশাসনের তরফে কোন্নগর থেকে দিল্লি রোডের সংযোগকারী ওই সড়কের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হয়। জেলা প্রশাসনের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘ওখানে ভূগর্ভস্থ পাইপ লাইন সংক্রান্ত কিছু সমস্যা রয়েছে। তবে তার জন্য কাজ আটকে থাকার মানে হয় না। শীঘ্রই যাতে জোরকদমে কাজ শুরু হয়, সেই ব্যাপারে পদক্ষেপ করা হচ্ছে।’’

রাস্তা জুড়ে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত। কোনও জায়গায় গর্তে জল জমে পুকুরের চেহারা নিয়েছে। কোথাও আবার থকথকে কাদায় যেন মেঠোপথ! সব মিলিয়ে নৈটি রোডে যাতায়াত করা কার্যত দুষ্কর। রাস্তাটি সংস্কারের কাজ শুরু হয়েও থমকে রয়েছে। এই নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। সম্প্রতি আনন্দবাজারে ওই রাস্তার হাল নিয়ে একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। বুধবার চুঁচুড়ায় বেহাল রাস্তা নিয়ে জেলা প্রশাসনের বৈঠকেও এই সড়কের প্রসঙ্গ ওঠে। এর পরেই জেলাশাসক ওয়াই রত্নাকর রাওয়ের নির্দেশে এ দিন শ্রীরামপুরের মহকুমাশাসক সম্রাট চক্রবর্তী জেলা পরিষদের এগ্‌জিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার পার্থসারথি শীলকে নিয়ে ওই রাস্তা পরিদর্শন করেন। শ্রীরামপুর-উত্তরপাড়ার বিডিও তমালবরণ ডাকুয়া, পঞ্চায়েত সমিতির সভানেত্রী দীপ্তি ভট্টাচার্য, নবগ্রাম ও কানাইপুর পঞ্চায়েতের প্রতিনিধিরাও ছিলেন।

প্রশাসন সূত্রের খবর, রাস্তার কিছু অংশে জল জমার সমস্যা রয়েছে। তা ছাড়া, ভূগর্ভস্থ জলের পাইপ লাইনের যাতে ক্ষতি না হয়, রাস্তার কাজে সেই অনুযায়ী যন্ত্রপাতি ব্যবহারের প্রশ্ন রয়েছে। সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের বক্তব্য, কাজ করতে এগুলি নিয়ে তেমন সমস্যা হবে না। এই বিষয়ে আগামী মঙ্গলবার মহকুমাশাসকের দফতরে ঠিকাদার সংস্থা, কেএমডিএ, জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতর-সহ সংশ্লিষ্ট সমস্ত দফতরকে নিয়ে বৈঠক ডাকা হয়েছে।

Advertisement

রাস্তাটি জেলা পরিষদের অধীনে। ওই দফতর সূত্রের খবর, বাংলা সড়ক যোজনায় রাজ্য গ্রামোন্নয়ন দফতর কোন্নগর থেকে দিল্লি রোড এবং সেখান থেকে দুর্গাপুর রোডের সংযোগস্থল পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা বরাদ্দ করে। মুর্শিদাবাদের একটি সংস্থা বরাত পায়। দিল্লি রোড থেকে দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ের সংযোগস্থল পর্য‌ন্ত রাস্তার কাজ প্রায় শেষ। কিন্তু দিল্লি রোড থেকে কোন্নগর স্টেশন পর্যন্ত অংশে হাতই পড়েনি। জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সুবীর মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘খুব শীঘ্র কাজ শুরু করা হবে। ঠিকাদার সংস্থাকে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে, ঢিলেমি চলবে না।’’

কালভার্টের কাজের জন্য শ্রীরামপুরের নওগাঁ থেকে পিয়ারাপুর পর্যন্ত এক কিলোমিটার অংশে বাস চলাচল শুরু হয়নি। প্রশাসন সূত্রের খবর, পূর্ত দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, কাজ শেষ। রাস্তাটি এখন বাস চলাচলের উপযুক্ত। আগামী সোমবার মহকুমাশাসক রাস্তাটি পরিদর্শন করবেন। মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট দফতরের আধিকারিকদের তিনি তিনি বৈঠক করবেন। সব ঠিকঠাক থাকলে সেখানেই ওই রাস্তায় বাস চলাচ‌ল শুরুর ছাড়পত্র মিলতে পারে।



Tags:
Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement