Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

সাংবাদিক বৈঠকে সম্প্রীতির ডাক দিলেন শুভাপ্রসন্নেরা

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৪ এপ্রিল ২০১৮ ২১:৪৫
বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করলেন বিদ্বজ্জনেরা।

বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করলেন বিদ্বজ্জনেরা।

তিনি রূপান্তরকামী। বুধবার কলকাতা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিক সম্মেলনে এমন মন্তব্যই করলেন শুভাপ্রসন্ন। বলেন, ‘‘লোকে বলে বুদ্ধিজীবীরা রূপান্তরকামী..হ্যাঁ, সোচ্চারে বলছি আমি রূপান্তরকামী।’’

আগামী ৮ এপ্রিল কলকাতায় মিছিলের ডাক দিয়েছেন বিশিষ্ট জনেরা। অনেকের মতে, যাঁরা মিছিলের ডাক দিয়েছেন, তাঁরা সম্প্রীতির বাতাবরণ নষ্টের জন্য বিজেপি-আরএসএসের পাশাপাশি তৃণমূলকেও দায়ী করেছেন। তার আগেই তড়িঘড়ি বুধবার প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক বৈঠকে দেখা গেল শাসক ঘনিষ্ঠ এক ঝাঁক বিদ্বজ্জনকে।

পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘিরে রাজ্য জুড়ে হিংসার সাম্প্রতিক ছবিটাই নানা ভাবে ঘুরে ফিরে এল শুভাপ্রসন্ন, সুবোধ সরকার, হোসেনুর রহমান, কবীর সুমন, কল্যাণ রুদ্র, আবুল বাশার, নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ীদের কথায়। বর্তমান পরিস্থিতিকে কী ভাবে দেখেন বুদ্ধিজীবীরা? প্রশ্ন তুললেন শুভাপ্রসন্ন। বললেন, যাঁরা সারাজীবন সাধনার কাজে নিজেদের নিযুক্ত রেখেছেন, সে প্রাবন্ধিক হোক, সাহিত্যিক, গায়ক বা খেলোয়াড়—তাঁরাই বিবেচনা করুন রাজ্যে কী ধরণের হিংসার বাতাবরণ তৈরি হয়েছে। তাঁর কথায় উঠে এল রূপান্তরকামীদের প্রসঙ্গও। এ দিন বৈঠকে তাঁর মন্তব্য,‘‘রূপান্তরকামী নিয়ে চারদিকে এত আস্ফালন। আমি, বলব যাঁরা সৃষ্টিশীল কাজ করেন তাঁরাই প্রকৃত অর্থে রূপান্তরকামী।’’

Advertisement

আরও পড়ুন:

কমিশন ঘিরে বিক্ষোভ মুকুলের, ‘সন্ত্রাস’ রুখতে মামলা সুপ্রিম কোর্টেও

মনোনয়ন ঘিরে উত্তপ্ত সন্দেশখালি, চলল গুলি, বোমা

পঞ্চায়েত ভোট ঘিরে তপ্ত হয়ে উঠছে বাংলা। উত্তর থেকে দক্ষিণ—রাজ্যের নানা প্রান্ত থেকে গন্ডগোলের খবর আসছে। শুভার কথায়, ‘‘করজোড়ে নিবেদন, হানাহানি, সাম্প্রদায়িকতা বন্ধ হোক। রবীন্দ্র-নজরুলের রাজ্যে এটা অনভিপ্রেত।’’ শুভাপ্রসন্নর সঙ্গেই এ দিন বক্তব্য রেখেছেন, প্রবীণ ইতিহাসবিদ হোসেনুর রহমানও। সবাইকে মিলেমিশে থাকার বার্তা দিয়ে হোসেনুর বলেন, ‘‘পরম শান্তিতেই তো ছিলাম। এখন ভাবছি আবার কেন? কিছু মানুষ গন্ডগোল পাকায়, মাঝখান থেকে সমস্যায় পড়েন সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক, শিক্ষকেরা।’’ আসানসোল বাজারে একই ছাদের তলায় দুই দোকান চালান মহম্মদ উসমান ও ধনপতি রায়। সাম্প্রতিক অশান্তি চিড় ধরাতে পারেনি তাঁদের বন্ধুত্বে। আসানসোল-রানিগঞ্জের নানা প্রান্তে এমন অনেক মহম্মদ এবং ধনপতি ছড়িয়ে রয়েছে। তাহলে এত অশান্তি কিসের? প্রশ্ন তোলেন হোসেনুর। তাঁর কথায়, ‘‘উচ্চশিক্ষা থাকলেই সম্প্রীতির ধারণা তৈরি হয় না।’’ রানিগঞ্জে এত বড় বিস্ফোরণ ঘটবে তাঁর আঁচও পায়নি ওই দুই সম্প্রদায়ের মানুষ। আমরা কবে বুঝব? সেই প্রশ্নও এ দিন তুলে ধরেন তিনি।

আরও পড়ুন

Advertisement