Advertisement
০৩ অক্টোবর ২০২২
kabir suman

Kabir Suman: নিজের তৈরি রাগ চুরির অভিযোগ তুললেন কবীর সুমন, উষ্মা প্রকাশ নেটমাধ্যমে

বছরখানেক আগে ‘আহির বৈরাগী’ নামে একটি রাগ তৈরি করেছিলেন সুমন। সেই রাগই চুরির অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

এসএসকেএম-এ চিকিৎসাধীন কবীর সুমন। ছবি সৌজন্য ফেসবুক।

এসএসকেএম-এ চিকিৎসাধীন কবীর সুমন। ছবি সৌজন্য ফেসবুক।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ জুলাই ২০২১ ২২:৪৬
Share: Save:

গুরুতর অভিযোগ তুললেন কবীর সুমন। তিনি এখন এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতাল থেকেই নেটমাধ্যমে সুমন অভিযোগ তুলেছেন, তাঁর একটি রাগ চুরি করে বেমালুম নিজের নামে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন এক ব্যক্তি।

বছরখানেক আগে ‘আহির বৈরাগী’ নামে একটি রাগ তৈরি করেছিলেন সুমন। সেই রাগই চুরির অভিযোগ তুলেছেন তিনি। অভিযোগ, সুভদ্রকল্যাণ রাণা নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। সুমনের দাবি, এই ব্যক্তি প্রচার করছেন ‘আহির বৈরাগী’ রাগটি নাকি তাঁরই তৈরি করা। শুধু তাই নয়, আরও লোকজন জুটিয়ে ফেসবুকে বাংলা খেয়াল সম্পর্কে আক্রমণ শুরু করেছেন সুভদ্রকল্যাণ।

রবিবার নেটমাধ্যমে গোটা বিষয়টি তুলে ধরে সুমন লিখেছেন, ‘আহির বৈরাগী নামে একটি রাগ তৈরি করেছিলাম বছরখানেকেরও আগে। সেই রাগের কথা ফেসবুকে জানিয়েছিলাম। রাগরূপ জেনে এক অচেনা বাঙালি যুবক যোগাযোগ করেন। তিনি জানান, ওই রাগটি বাজাতে চান। তিনি শিখে নিয়ে তবলা তরঙ্গে বাজিয়ে শোনান। তার পর সেই বাহাদুর সুভদ্রকল্যাণ রাণা প্রচার করতে থাকেন ওই রাগটি তাঁরই সৃষ্টি। সেই সঙ্গে আরও লোক জুটিয়ে ফেসবুকে বাংলা খেয়াল সম্পর্কে আক্রমণ শুরু করেন।’

তবে এমন ঘটনা এর আগেও নামী বঙ্গসন্তান ঘটিয়েছেন বলে দাবি সুমনের। এবং আগামী দিনে আরও এ রকম ঘটনা ঘটতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি। শেষে সুভদ্রকল্যাণ রাণার উদ্দেশে সুমন বলেন, ‘আশা করছি হিংসা হানাহানি, মিথ্যাচারে নয়, সঙ্গীত শিক্ষায় ব্রতী থাকবেন। শিখবেন। মন ভাল রাখবেন। সঙ্গীতসঙ্গ করবেন।’

তিনি চিকিৎসক এবং সেবিকাদের সহযোগিতায় দ্রুত সেরে উঠছেন বলে জানিয়েছেন সুমন। আর সুস্থ হয়ে উঠেই তিনি বাংলা খেয়ালের সেবায় ফিরে যাবেন বলেও জানিয়েছেন। তাঁর কথায়, ‘এটাই আমার জীবনের আসল কাজ, আমার জীবনের শেষ ব্রত।’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.