Advertisement
২২ মে ২০২৪
Public Harassment

সাইকেল চালককে ইট দিয়ে ‘মাথায় আঘাত’ অটোচালকের

সুব্রতের দাবি, এক যাত্রী তাঁকে থানায় গিয়ে অভিযোগ জানাতে বলেন। সেই মতো থানার দিকে রওনা হতেই রাস্তায় পড়ে থাকা ইট তুলে সুব্রতের মাথায় অটোচালক আঘাত করেন বলে অভিযোগ।

An image of Auto

—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০২৩ ০৭:০২
Share: Save:

এক অটোচালকের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ তুললেন এক ব্যক্তি। শুক্রবারের এই ঘটনায় লেক থানায় অভিযোগ দায়ের হলেও শনিবার রাত পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি। ঘটনাস্থলের আশপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে তদন্তকারীরা জানাচ্ছেন।

পুলিশ সূত্রের খবর, অভিযোগকারীর নাম সুব্রত বেরা। সেলিমপুরের বাসিন্দা ওই ব্যক্তির দাবি, তিনি মেয়েকে স্কুল থেকে নিয়ে সাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে, যাদবপুর থানার কাছে একটি বেপরোয়া অটো এসে সাইকেলে বসে থাকা তাঁর মেয়ের কনুইয়ে ধাক্কা মারে। এর পরে অটোটি কিছুটা এগিয়ে সিগন্যালে দাঁড়ায়। সেই পর্যন্ত সাইকেল নিয়ে গিয়ে অটোচালক কেন দেখে চালাচ্ছেন না, এমন কথা বলতেই সুব্রতকে গালিগালাজ করা হয় বলে অভিযোগ। এর পরে বচসা শুরু হয় দু’জনের। তখনই অটোচালক নেমে এসে সুব্রতকে মারধর করেন বলে অভিযোগ। সুব্রতের দাবি, এক যাত্রী তাঁকে থানায় গিয়ে অভিযোগ জানাতে বলেন। সেই মতো থানার দিকে রওনা হতেই রাস্তায় পড়ে থাকা ইট তুলে সুব্রতের মাথায় অটোচালক আঘাত করেন বলে অভিযোগ। মাথা ফেটে যায় তাঁর। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাঁর মাথায় সেলাই পড়ে।

সুব্রত শনিবার বলেন, ‘‘আমার লাগলেও ঠিক আছে, বাচ্চা মেয়েটার ক্ষতি হয়ে গেলে কী হবে? এটা বলতেই ওই অটোচালক মারতে শুরু করেন। পুলিশে যাচ্ছি শুনে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করেন। যাদবপুর থানায় গিয়েছিলাম। ঘটনাস্থল লেক থানার অন্তর্গত হওয়ায় সেখান থেকে ওই থানায় পাঠানো হয়।’’ লেক থানা সূত্রের খবর, অটোটি কোন রুটের ছিল, অভিযোগকারী তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না। তিনি জানিয়েছেন, রবীন্দ্র সরোবরের দিক থেকে যাদবপুর থানার দিকে সেটি আসছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Auto Driver Cycle
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE