Advertisement
২১ মার্চ ২০২৩
Calcutta News

গাড়ি আছে চালক নেই? দেশের নানা শহরে এখন মুশকিল আসান ‘পঞ্চপাণ্ডব’ বঙ্গসন্তান

প্রায় এক বছর ধরে নানা পরিকল্পনার পর ২০১৮ সালে পথ চলা শুরু ‘পঞ্চপাণ্ডব’-এর।

করোনার আবহে যাবতীয় স্বাস্থ্যবিধির দিকেও নজর রেখেছে ‘ড্রাইভার্স ফর মি’। —নিজস্ব চিত্র।

করোনার আবহে যাবতীয় স্বাস্থ্যবিধির দিকেও নজর রেখেছে ‘ড্রাইভার্স ফর মি’। —নিজস্ব চিত্র।

সোমনাথ মণ্ডল
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ জুন ২০২০ ১৯:০৭
Share: Save:

একটা ঘটনাই ‘পঞ্চপাণ্ডব’-এর জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিল। নামী তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার চাকরি ছেড়ে এখন ওঁরা পাঁচ বন্ধু নিজেরাই উদ্যোগপতি। তৈরি করেছেন ‘ড্রাইভার্স ফর মি’ নামে একটি অ্যাপ নির্ভর সংস্থা। কলকাতা ছাড়িয়ে মুম্বই, দিল্লি, হায়দরাবাদ থেকে বেঙ্গালুরু— এমনকি পুণেতেও বহু মানুষের কর্মসংস্থানের পথ দেখাচ্ছে ‘পঞ্চপাণ্ডব’-এর ওই সংস্থা।

Advertisement

রাজর্ষি নাগ, পরমার্থ সাহা, প্রচেতস মিত্র, রনিত রায় এবং রাজর্ষি বসু— পাঁচ বন্ধু সল্টলেকের কলেজ মোড়ের কাছে একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে পড়তেন। প্রত্যেকেই কম্পিউটার সায়েন্সের ছাত্র। দ্বিতীয় বর্ষে পড়ার সময় তাঁদের বন্ধু ঋষভ বর্মণ এক বার পরীক্ষা দিতে পারেন না। কারণ, তাঁর বাড়ির গাড়িচালক আসেননি। শেষে বাসে করে কোনও রকমে কলেজে পৌঁছলেও ঋষভ পরীক্ষা দিতে পারেননি। তৃতীয় বর্ষে পড়ার সময়েই নিজেরা উদ্যোগী হয়ে কিছু করার চেষ্টা করছিলেন ওঁরা। সেই ভাবনা থেকেই ‘ড্রাইভার্স ফর মি’। প্রায় এক বছর ধরে নানা পরিকল্পনার পর ২০১৮ সালে পথ চলা শুরু। এরই মাঝে নামী তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় চাকরি। কিন্তু সে চাকরি ছেড়ে রাজর্ষিরা নিজেদের উদ্যোগেই মনোনিবেশ করেন।

তো সেই উদ্যোগটা কেমন? সংস্থার অন্যতম কর্ণধার রাজর্ষি নাগ জানালেন, অনেকেই পাড়ার ‘ড্রাইভার্স সেন্টার’ থেকে চালক ভাড়া করেন। তবে সেখানে নানা রকমের নিয়মও রয়েছে। কোথাও নূন্যতম ৬ ঘন্টা ভাড়া করার শর্ত দেওয়া হয়। আবারও কলকাতার বাইরে গেলে, অন্য ফিরিস্তি। হঠাৎ প্রয়োজনে চালক না-পাওয়ার অভিজ্ঞতাও অনেকের রয়েছে। এমন নানা সমস্যার কথা মাথায় রেখেই ‘ড্রাইভার্স ফর মি’-এর পথ চলা। রাজর্ষি বলেন, “আমাদের অ্যাপের মাধ্যমে যে কোনও সময়েই গাড়ির চালক পাওয়া যাবে। কত ঘণ্টার জন্য, কোথায় যাবেন, সে বিষয়ে অ্যাপে বুকিং করেই নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছে যাবে চালক। চালকদের কোম্পানির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন, তাঁদের পুলিশ ভেরিফিকেশনও করা। যে হেতেু অ্যাপ নির্ভর পরিষেবা, তাই চালক কোথায় যাচ্ছেন তা বাড়িতে বসেই ট্রাক করা সম্ভব।” কেউ যদি ব্যক্তিগত ভাবে চালক নিতে চান, তা-ও পাওয়া যাবে। আবার কোনও সংস্থা যদি গাড়ি এবং চালক দুই চান, তা-ও পাওয়া যাবে।

আরও পড়ুন: পঙ্গু ছেলে, পঙ্গু স্ত্রী, ওঁদের ‘বাঁচাতেই’ সঙ্গে নিয়ে মরলেন নিঃসহায় বৃদ্ধ!

Advertisement

আরও পড়ুন: গাড়ির চাপে গতি-হারা শহর থেকে শহরতলি​

করোনার জন্য যা যা সতর্কতা নেওয়া দরকার, সবই নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে ‘ড্রাইভার্স ফর মি’। —নিজস্ব চিত্র।

গত দু’বছরের মধ্যে কয়েক কোটি টাকার এই ব্যবসার মালিক হতে কিন্তু অনেক ঘাতপ্রতিঘাতের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে পাঁচ বন্ধুকে। কলেজ শেষে ইচ্ছে না থাকলেও, রাজর্ষি নাগ-সহ এক এক করে বন্ধু ভিন রাজ্যে পাড়ি দিয়েছিলেন। কিন্তু কলেজ জীবনের সেই স্বপ্নকে ভুলতে পারছিলেন না কেউই। অন-লাইন ব্যবসা তখনও আশা জাগাচ্ছিল ‘পঞ্চপাণ্ডব’-এর। এক দিন সিদ্ধান্ত নিয়ে পেলেন, এ বার নিজেদেরই কিছু করতে হবে। চাকরি ছেড়ে দেন। ঝুঁকি নিয়ে এখন কয়েক কোটি টাকার ব্যবসা তাঁদের। এক সময় অন্যের কোম্পানিতে চাকরি করতে গিয়েছিলেন যাঁরা, এখন কয়েক হাজার মানুষ কাজ করছেন তাঁদেরই সংস্থায়। রাজর্ষি নাগের কথায়, “ঘণ্টায় মাত্র ৪৯ টাকা দিয়ে ‘Drivers4Me’-এর চালক ভাড়া করা যাবে। এখন করোনার জন্য যা যা সতর্কতা নেওয়া দরকার, সবই নেওয়া হচ্ছে। ২৪ ঘণ্টাই পরিষেবা পাওয়া যাবে। গুগ্‌ল প্লে স্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকেও কোম্পানির অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.