×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

ভাড়া নির্ধারণে স্বচ্ছতার দাবিতে ক্যাবচালকদের বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৯ মার্চ ২০২১ ০৬:০৬
—প্রতীকী ছবি।

—প্রতীকী ছবি।

ভাড়া নির্ধারণে অস্বচ্ছতা দূর করার দাবিতে সোমবার দক্ষিণ কলকাতার রাসবিহারী এলাকা সংলগ্ন একটি অ্যাপ-ক্যাব সংস্থার অফিসে বিক্ষোভ দেখাল এআইটিইউসি-র অ্যাপ-ক্যাব চালকদের সংগঠন। করোনা পরিস্থিতির ধাক্কা কাটিয়ে আগের তুলনায় অ্যাপ-ক্যাবে যাত্রী বাড়তে শুরু করেছে। কিন্তু, ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির মধ্যে অ্যাপ-ক্যাব সংস্থাগুলি ভাড়া নির্ধারণের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা রাখছে না বলেই অভিযোগ চালকদের। তাই যথেষ্ট সংখ্যক ট্রিপ করার পরেও তাঁরা ন্যায্য প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ।

কম চাহিদার সময়ে ক্যাব সংস্থাগুলি প্রায়ই যাত্রী টানতে কম ভাড়ায় যাতায়াতের সুযোগ করে দেয়। আবার চাহিদা বাড়লে ৩-৪ গুণ পর্যন্ত সার্জ প্রাইস গুনতে হচ্ছে যাত্রীদের। ঘোষিত ভাবে একটি ট্রিপ থেকে আদায় হওয়া ভাড়ার প্রায় ২৬ শতাংশ কেটে নেয় ক্যাব সংস্থাগুলি। এর মধ্যে ২০ শতাংশ টাকা যায় সরাসরি ক্যাব সংস্থার কাছে। অ্যাপ এবং অন্যান্য পরিকাঠামোগত খরচের ভাড়া হিসেবে ওই টাকা নেয় তারা। এ ছাড়াও জিএসটি বাবদ পাঁচ শতাংশ এবং টিডিএস বাবদ এক শতাংশ টাকা কাটা হয়। অভিযোগ, প্রায়শই তার চেয়েও বেশি টাকা ক্যাব সংস্থাগুলি চালকদের কাছ থেকে কিছু না জানিয়ে কেটে নেয়। ডিজেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির মধ্যে যে সময়ে ক্যাবের চাহিদা কম থাকে, সেই সময়ে কম ভাড়ার ট্রিপ করে চালকেরা অনেকেই সমস্যায় পড়ছেন। তেলের খরচও তুলতে পারছেন না অনেকে। সমস্যা মেটাতে ভাড়া নির্ধারণের হারে সমতা চান চালকেরা। ক্ষতি এড়াতে একাংশের চালক যাত্রীদের ইচ্ছের বিরুদ্ধে নানা অজুহাতে এসি বন্ধ রাখছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। তাতে যাত্রী এবং চালকদের মধ্যে সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে।

একটি ট্রিপ সম্পূর্ণ করার পরে ২ কিলোমিটারের মধ্যে নতুন যাত্রীভাড়া পাওয়ার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছে এআইটিইউসি-র সংগঠন। এ দিন সংগঠনের নেতা নওলকিশোর শ্রীবাস্তব বলেন, ‘‘ক্যাব সংস্থার অনিয়মের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের পরে আগামী ১৫ মার্চ আমরা গণেশ অ্যাভিনিউয়ের পরিবহণ ভবন ঘেরাও করব।’’

Advertisement

এ দিন আইএনটিটিইউসি অনুমোদিত ওয়েস্ট বেঙ্গল অনলাইন ক্যাব অপারেটর্স গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায় রাসবিহারীর ওই বিক্ষোভ সভায় বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, ‘‘অ্যাপ-ক্যাবের সব ক’টি সংগঠনকে নিয়ে আমরা যৌথ আন্দোলনের পরিকল্পনা করছি। কিলোমিটার পিছু ভাড়া নির্ধারণে স্বচ্ছতা এলেও শুধু চালকেরা নন, যাত্রীরাও উপকৃত হবেন।’’

যদিও এই বিক্ষোভ কিংবা ক্যাবচালকদের অভিযোগ নিয়ে রাসবিহারী সংলগ্ন ওই ক্যাব সংস্থার তরফে কোনও মন্তব্য করতে চাওয়া হয়নি।

Advertisement