×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

বিজেপির উপরে হামলার অভিযোগ রত্নার বিরুদ্ধে, থানা ঘেরাও, শোভন বললেন অনভিপ্রেত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ ২২:৫৮
রত্না চট্টাপাধ্যায়।—ফাইল চিত্র।

রত্না চট্টাপাধ্যায়।—ফাইল চিত্র।

বিজেপি কর্মীদের উপর হামলার অভিযোগ উঠল তৃণমূল নেত্রী রত্না চট্টাপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। পর্ণশ্রী থানায় এ বিষয়ে তাঁর বিরুদ্ধে একটি মামলাও দায়ের হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিবাদ জানিয়ে পথ অবরোধের পাশাপাশি রবিবার পর্ণশ্রী থানা ঘেরাও করেন বিজেপির নেতা-কর্মীরা।

বিজেপির অভিযোগ, শনিবার সকালে পর্ণশ্রীর কালিমাতা কলোনিতে তাদের কয়েক জন কর্মী-সমর্থক বসে গল্প করছিলেন। দলের বেশ কয়েক জন কার্যকর্তাও সেখানে ছিলেন। সেই সময় রত্না চট্টোপাধ্যায় তৃণমূলের জনা পঞ্চাশেক লোক নিয়ে এসে তাঁদের উপর চড়াও হয়। বিজেপি করা যাবে না বলেও শাসানো হয় তাঁদের। শুধু তাই নয়, বিজেপি নেতা মেঘনাদ পোদ্দারের হাত-পা ভেঙে দেওয়া হবে বলেও হুমকি দেয় রত্না চট্টোপাধ্যায়ের লোকজন। তাদের কর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে রবিবার সন্ধ্যায় পর্ণশ্রী থানা ঘেরাও করে বিজেপি।

দক্ষিণ শহরতলির বিজেপির জেলা সভাপতি সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “রত্না চট্টোপাধ্যায় তাঁর দলবল নিয়ে এসে আমাদের কর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছে। এই ঘটনার প্রতিবাদে পথ অবরোধ এবং থানা ঘেরাও করেছি।” এর পরই তাঁর হুঁশিয়ারি, “পুলিশ যদি এই ঘটনায় অবিলম্বে পদক্ষেপ না করে তা হলে তাঁরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামব আমরা।”

Advertisement



দক্ষিণ শহরতলির বিজেপির জেলা সভাপতি সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়।—নিজস্ব চিত্র।

যদিও তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রত্না। পাল্টা তাঁর দাবি, “ বিজেপির কয়েকটা ছেলে পর্ণশ্রীর কালিমাতা কলোনিতে বিজেপির কিছু ছেলে রাস্তার উপর বসে মদ খাচ্ছিল। এক জনের বাড়ি দখল করে পার্টি অফিস খোলার চেষ্টা করছিল। খবর পেয়েই আমি সেখানে যাই এবং তাদের সতর্ক করি। এ নিয়ে আমার সঙ্গে বিজেপির ছেলেদের তর্ক হয়েছে। এর বেশি কিছু নয়। পুলিশে যদি কারও অভিযোগ দায়ের করার থাকে, তিনি তা করতেই পারেন। এ নিয়ে কিছু বলার নেই।”

আরও পড়ুন: ন’বছর আগের ৩ খুনের মামলায় চার্জশিট, মুকুল-মণিরুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

অন্য দিকে, শোভন চট্টোপাধ্যায় এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, “ওই এলাকায় অনেক দিন সক্রিয় ভাবে রাজনীতিতে নেই। তবে যত দিন ছিলান কখনও এই রকম কোনও ঘটনা ঘটেনি। একটা দল আরেকটা দলের কার্যকলাপে হস্তক্ষেপ করছে, বিশেষ ভাবে কারও নামে থানায় অভযোগ দায়ের হচ্ছে, এ রকম কখনও হয়নি। এটা পর্ণশ্রীর সংস্কতি নয়। যা ঘটেছে, তা অনভিপ্রেত।”

আরও পড়ুন: ধর্ষণের মামলা তুলে নিতে রাজি না হওয়ায় যোগীর রাজ্যে এ বার মাহিলার উপর অ্যাসিড হামলা

Advertisement