×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

করোনাকে রুখতে বাড়িতে ইদের নমাজ পড়ার আর্জি

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৪ মে ২০২১ ০৬:০৭
বিধি-ভঙ্গ: ইদের আগে নিউ মার্কেট চত্বরে কেনাকাটার ভিড়ে দূরত্ব-বিধি মেনে চলার বালাই নেই। বৃহস্পতিবার। ছবি: স্বাতী চক্রবর্তী

বিধি-ভঙ্গ: ইদের আগে নিউ মার্কেট চত্বরে কেনাকাটার ভিড়ে দূরত্ব-বিধি মেনে চলার বালাই নেই। বৃহস্পতিবার। ছবি: স্বাতী চক্রবর্তী

কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় রেড রোডে আজ, শুক্রবার ইদের নমাজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছে সেখানকার দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিটি। অতি মারির কথা মাথায় রেখে গত বছরের মতো এ বারও বাড়িতে থেকেই ইদের নমাজ পড়ার জন্য আবেদন জানাচ্ছেন রাজ্যের মুসলিম ধর্মগুরুরা। তাঁদের কথায়, ‘‘দেশের স্বার্থে কোথাও জমায়েত করবেন না। এখন পরিস্থিতি ভাল নয়। তাই সংযমের সঙ্গে কোভিড-বিধি মেনে ইদের নমাজ পড়ুন।’’

রেড রোডে ইদের নমাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইমাম ফজলুর রহমান আর্জি জানাচ্ছেন, ‘‘গত বছরেও আপনারা সংযম দেখিয়ে ছিলেন। এ বারেও কষ্ট করে মেনে চলুন। মনে রাখতে হবে, এ বার পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ।’’ ফুরফুরা দরবার শরিফের মুখ্য নির্দেশক ত্বহা সিদ্দিকি বলেন, ‘‘শরিয়তে বলা আছে, মহামারির সময়ে কেউ নিজের পাড়া থেকে বেরোবেন না। কোভিড-বিধি মেনে ৫০ জনের কম লোক নিয়ে ছোট ছোট দল করে নমাজ পড়ুন।’’

শারীরিক দূরত্ব মেনে নমাজ পড়ার কথা বলছেন ধর্মতলার টিপু সুলতান মসজিদের ইমাম হারুন হাফেজ়ও। তাঁর কথায়, ‘‘আমাদের মসজিদে ইদের নমাজ পড়তে কিছ বিধিনিষেধ জারি হয়েছে। শারীরিক দূরত্ব-বিধি মেনে চলার জন্য গোল দাগ কাটা হয়েছে। মসজিদে ঢুকতে গেলে মাস্ক পরে আসতেই হবে। শিশু-বয়স্করা বাড়িতেই নমাজ পড়ুন। শরীর খারাপ থাকলে মসজিদে আসবেন না।’’ সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সম্পাদক মহম্মদ কামরুজ্জামানও আর্জি জানাচ্ছেন, ইদের নমাজ পড়তে কোনও ভাবেই যেন জমায়েত ৫০ জনের বেশি

Advertisement

না হয়।

ইদের নমাজে ভিড় কম করার পরামর্শ দিয়েছেন মুসলিম বুদ্ধিজীবীরাও। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক ইতিহাস বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ওসমান গনির আবেদন, ‘‘এক মাস রমজান পালন করে যে সহিষ্ণুতার পরিচয় দিয়েছেন, একই ভাবে সেই সংযম দেখিয়ে বাড়িতে থেকেই ইদের নমাজ পড়ুন। এখন বিপদ প্রতি পদে পদে। তাই ভিড় না বাড়িয়ে বরং পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেই ইদের আনন্দ ভাগ করে নিন।’’

আইনজীবী এক্রামুল বারির কথায়, ‘‘আমাদের নিজের বিবেক, শিক্ষা থেকে নিজেকে, অন্যকে বাঁচাতে আমরা যেন বাড়িতে থেকেই নমাজ পড়ি।’’ সারা বাংলা সংখ্যালঘু বুদ্ধিজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এস এম শামসুদ্দিনও বলেন, ‘‘আমরা বিভিন্ন ভাবে বলে আসছি, সংক্রমণ রুখতে কোনও ভাবেই যাতে একজোট হয়ে নমাজ পড়া না-হয়, সে দিকে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে হবে। আমরা সচেতন হলেই হার মানবে করোনা।’’

Advertisement