×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

ভ্রমণপিপাসুদের জন্য বাইক সফরে হাত বাড়াচ্ছে আই আর সি টি সি

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা২৮ নভেম্বর ২০২০ ০৬:০১
ছবি সংগৃহীত।

ছবি সংগৃহীত।

করোনা আবহে জোর ধাক্কা খেয়েছে পর্যটন ব্যবসা। আগের মতো অনেকে মিলে বেড়াতে যাওয়ার সেই পরিস্থিতি আর নেই। ফলে ভ্রমণ সংস্থাগুলিকেও প্যাকেজ পরিকল্পনার ক্ষেত্রে খোলনলচে বদলের কথা ভাবতে হচ্ছে। নিউ নর্মাল পরিস্থিতিতে দূরত্ব-বিধি বজায় রেখে কী ভাবে ভ্রমণে বৈচিত্র আনা যায়, সে সব ভেবেই নতুন পরিকল্পনা তৈরি করছেন আই আর সি টি সি (ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কেটারিং অ্যান্ড টুরিজ়ম কর্পোরেশন) কর্তৃপক্ষ।

নতুন পরিকল্পনায় ঠাঁই পাচ্ছে বাইক নিয়ে সফর। এত দিন এমন সফরের গন্তব্য শিলং বা অরুণাচল প্রদেশ থাকলেও এ বার রুট বদলে তা হচ্ছে কলকাতা থেকে দক্ষিণবঙ্গের জেলা বাঁকুড়ার জয়পুরের জঙ্গল। বাইকে কলকাতা থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরত্বের ওই পথ সকালে গিয়ে ফের সন্ধ্যার মধ্যেই ফেরত আসার ব্যবস্থা থাকছে নয়া পরিকল্পনায়। খানিকটা অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের অনুভূতি দিতেই ওই পরিকল্পনা নিয়ে শীতের সময়ে পর্যটক টানতে নামছে রেলের এই সংস্থা। আগ্রহীরা চাইলে সংস্থার বাইক ভাড়া নিতে পারেন অথবা নিজের বাইকও ব্যবহার করতে পারেন। তবে নিজের বাইক ব্যবহার করলে তা নিদেনপক্ষে ২০০ সিসি-র হতে হবে। সে ক্ষেত্রে টুর প্যাকেজে মাথাপিছু প্রায় ১৩০০ টাকা পর্যন্ত সাশ্রয় হতে পারে। একা বা সঙ্গী নিয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রে আগ্রহীদের বাইক চালানোর লাইসেন্স থাকা বাধ্যতামূলক।

আগামী ১২ ডিসেম্বর প্রথম দফার বাইক সফর শুরু হচ্ছে। ডালহৌসি থেকে যাত্রা শুরু ভোর পাঁচটায়। সর্বোচ্চ ২০টি বাইক সফরে যেতে পারবে। প্রতিটি বাইকে সর্বাধিক দু’জন যাবেন। সে ক্ষেত্রে দ্বিতীয় ব্যক্তির খরচ আলাদা। খরচ মাথাপিছু ২৭০০ টাকা থেকে ৪১০০ টাকা। পথে চা, জলখাবার, পানীয় এবং মধ্যাহ্নভোজ-সহ খাবারের ব্যবস্থা আই আর সি টি সি-র। গন্তব্যে পৌঁছনোর পরে সেখানেও থাকবে একাধিক অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের।

Advertisement

আই আর সি টি সি-র কলকাতার আঞ্চলিক অফিসের  ভ্রমণ পরিকল্পনার দায়িত্বপ্রাপ্ত অন্যতম আধিকারিক দীপঙ্কর মান্নার  কথায়, “মানুষ বেড়ানোর আনন্দ নিতে চাইলেও আলাদা ভাবেই ঘুরতে চাইছেন। তরুণ প্রজন্মের একটা বড় অংশ বাইকে সফর করছেন। সে কথা মাথায় রেখেই এই পরিকল্পনা। এর ফলে অংশগ্রহণকারীরা ভ্রমণের পাশাপাশি রোমাঞ্চের স্বাদও পাবেন।” 

সংস্থা সূত্রের খবর, এক দিনের সফরে যাতে ভোরে বেরিয়ে সন্ধ্যায় ফিরে আসা যায়, সে কথা ভেবেই বাঁকুড়ার জয়পুরের জঙ্গলকে গন্তব্য হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে। কলকাতা থেকে ডানকুনি হয়ে, দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে ধরে দুর্গাপুর ব্যারাজ পেরিয়ে বাঁকুড়া পৌঁছনো যাবে। পুরো পথে বাইক আরোহীদের যে কোনও সমস্যায় সাহায্য করার জন্য মেকানিক, মেডিক্যাল টিম এবং পৃথক গাড়ি থাকবে। শুরুতেই তাঁদের যাত্রাপথে কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে তা বোঝানো হবে। 

পাশাপাশি আগামী বছরের মার্চে আন্দামান ভ্রমণের প্যাকেজ আনছে সংস্থা। বছরের অন্য সময়ে যে খরচ পড়ে তার তুলনায় প্রায় ১৫ শতাংশ কম খরচে মাথাপিছু আসা যাওয়ার বিমান ভাড়া-সহ পাঁচ রাত এবং ছয় দিনের ওই প্যাকেজ মিলছে ৩২৫৫০ টাকায়! সেই ভ্রমণ তালিকায় থাকছে পোর্ট ব্লেয়ার, হ্যাভলক দ্বীপ এবং নেইল দ্বীপের মতো আকর্ষণীয় স্থানও।

Advertisement