Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

কলকাতায় এটিএম জালিয়াতির পিছনে রয়েছে দেশি গ্যাংও, ধৃত বিহারের দুই

কলকাতায় এটিএম জালিয়াতির নেপথ্যে রয়েছে রোমানীয়রাই, এতদিন এ বিষয়ে কার্যত নিশ্চিত ছিলেন কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দারা। এ বার কলকাতায় ধরা পড়ল এটিএম

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৭ জানুয়ারি ২০২০ ১২:০০
Save
Something isn't right! Please refresh.
দুই ধৃত মুদাস্সর খান এবং ইরফানুদ্দিন।

দুই ধৃত মুদাস্সর খান এবং ইরফানুদ্দিন।

Popup Close

কলকাতায় এটিএম জালিয়াতির নেপথ্যে রয়েছে রোমানীয়রাই, এতদিন এ বিষয়ে কার্যত নিশ্চিত ছিলেন কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দারা। এ বার কলকাতায় ধরা পড়ল এটিএম জালিয়াতির একটি দেশি গ্যাং।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিয়ালদহ স্টেশন থেকে ওই দেশি গ্যাংয়েরই দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে ৩৮টি এটিএম কার্ড, স্কিমিং ডিভাইস এবং একটা ল্যাপটপ উদ্ধার হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতেরা হলেন মুদাস্সর খান এবং ইরফানুদ্দিন। তারা দুজনেই বিহারের গয়ার বাসিন্দা। কলকাতার যাদবপুর এবং তিলজলায় ভাড়া থাকেন। ওই দিন সন্ধ্যায় দার্জিলিং মেল ধরার জন্য তাঁরা শিয়ালদহ স্টেশনে এসেছিলেন, তখনই তাঁদের হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

Advertisement



উদ্ধার হওয়া এটিএম কার্ড।

আরও পড়ুন: পারদ ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী, রাজ্যে ফের বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল আলিপুর

কী ভাবে এটিএম জালিয়াতি করতেন তাঁরা? প্রাথমিক জি়জ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ জেনেছে, তাঁরা মূলত টার্গেট করত বয়স্ক এবং অশিক্ষিত মানুষদের। এটিএমের উপর নজর রাখতেন সারাক্ষণ। এমন কোনও মানুষ এটিএমে ঢুকলেই তাঁরাও সাহায্য করার অছিলায় কিয়স্কে ঢুকে পড়তেন। তারপর কয়েক সেকেন্ডের জন্য তাঁদের এটিএম কার্ড হাতে নিয়ে স্কিমিং ডিভাইসের মাধ্যমে সমস্ত ডেটা স্ক্যান করে নিতেন। পাশাপাশি এটিএম পিনও জেনে নিতেন তাঁরা। তারপর নকল কার্ড বানিয়ে সেটা দিয়ে এটিএম থেকে টাকা তুলে নিতেন।

আরও পড়ুন: প্যারোলে ছাড়া পেয়ে নিখোঁজ মুম্বই বিস্ফোরণের যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ‘ডক্টর বম্ব’, ঘুম উড়েছে পুলিশের

এই গ্যাংয়ের সঙ্গে আর কোনও লোকজন এই শহরে রয়েছেন কি না, তার খোঁজ করছে পুলিশ। এতদিন মূলত এটিএম জালিয়াতির পিছনে রোমানীয় গ্যাংয়েরই হাত ছিল বলে জানতে পেরেছিলেন গোয়েন্দারা। রোমানীয় গ্যাংকে ধরতে বিভিন্ন রাজ্যের পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছেন কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দারা। এমনকি রোমানীয় গ্যাংটি নেপালেও পালিয়ে যেতে পারে, এই সন্দেহে নেপালের গোয়েন্দা এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন তাঁরা।

ছবি :সংগৃহীত।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement