Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সিপি-র নির্দেশের পরেও মহিলা বক্সারকে কেন সাহায্য নয়? তদন্তে লালবাজার

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৯ জুন ২০১৯ ১৪:৫২
পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মার নির্দেশ সত্ত্বেও কেন সাহায্য পেলেন না সুমন গ্রাফিক? গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ।

পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মার নির্দেশ সত্ত্বেও কেন সাহায্য পেলেন না সুমন গ্রাফিক? গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ।

আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন মহিলা বক্সার সুমন কুমারীকে হেনস্থার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করল কলকাতা পুলিশ। ফেসবুকে ওই হেনস্থার ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে শুক্রবার পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সুমন।

পুলিশের কাছে সাহায্য চেয়েও তিনি হতাশ হয়েছেন বলে দাবি করেছিলেন ফেসবুক পোস্টে। ঘটনাস্থলে কর্মরত ওই পুলিশ কর্মীর ভূমিকা খতিয়ে দেখতে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে লালবাজার সূত্রে খবর।

শুক্রবার পুলিশের সামনেই এক মহিলা বক্সারকে হেনস্থা করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। হেনস্থাকারীকে পাকড়াও না করে, ওই পুলিশ কর্মী সুমনকে থানায় যেতে বলেন। সম্প্রতি প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া উষসী সেনগুপ্তকে হেনস্থার পর খোদ পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা বাহিনীকে নির্দেশ দেন, কোনও অভিযোগ এলে থানার ‘জুরিসডিকশন’ না দেখেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। দায়িত্ব এড়িয়ে গেলে চলবে না। তার পরেও, সুমন কুমারীকে হেনস্থার ঘটনায় ওই পুলিশ কর্মী নিজের দায়িত্ব এড়িয়ে গিয়ে থানায় যেতে পরামর্শ কেন দিতে গেলেন? তাঁর কোনও গাফিলতি ছিল কি না, এ সব খতিয়ে দেখতেই বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘মোদী খুব ভাল’, সেলফি পোস্ট করে লিখলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

আরও পড়ুন: কলকাতার রাস্তায় মহিলা বক্সারকে হেনস্থা, অভিযোগের ২ ঘণ্টার মধ্যেই পাকড়াও ৩ অভিযুক্ত

পুলিশ সূত্রে খবর, ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এর পাশাপাশি মহিলা বক্সারের বক্তব্যও শোনা হবে। অবশ্য ওই ফেসবুক পোস্ট দেখে কলকাতা পুলিশের তরফেই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তার ভিত্তিতে মামলা রুজু হয় সাউথ পোর্ট থানায়। ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যেই তিন অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশ। শুক্রবার সকালেই ঘটনাটি ঘটেছে মোমিনপুরে। সম্প্রতি তাইওয়ানে পেশাদার বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপ জেতা বক্সার সুমন কুমারীর বাড়ি খিদিরপুর এলাকায়।

আরও পড়ুন

Advertisement