×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৫ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

তোলা না পেয়ে মার দোকানি ও কর্মীকে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ ডিসেম্বর ২০২০ ০১:৫৭
—প্রতীকী ছবি

—প্রতীকী ছবি

তোলা চেয়ে না পাওয়ায় ফের এক ব্যবসায়ীর ছেলে ও তাঁর কর্মচারীকে মারধরের অভিযোগ উঠল। সোমবার রাতের সেই ঘটনাস্থলও এক। হাওড়ার চ্যাটার্জিহাট থানা এলাকার সাঁতরাগাছি মোড়। তবে লিখিত অভিযোগ না পাওয়ায় পুলিশ ঘটনাটিকে তোলাবাজি বলতে নারাজ।

মাসখানেক আগে ওই এলাকায় তোলা চেয়ে না পাওয়ায় এক মুদিখানার দোকানিকে স্থানীয় দুষ্কৃতীরা রড দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছিল। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে প্রহৃত হন তাঁর বাবা-মাও। এ বার বিরিয়ানির দোকান থেকে তোলা চেয়ে না পাওয়ায় সেই ব্যবসায়ীর ছেলে ও এক কর্মীকে রাস্তায় ফেলে পেটানোর অভিযোগ উঠল দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

স্থানীয় সূত্রের খবর, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ দোকান বন্ধ করতে যাচ্ছিলেন মালিকের ছেলে মহম্মদ কাদের। তাঁর দাবি, এক যুবক এসে দোকানের কর্মী মহম্মদ দানেশের কাছে টাকা চায়। না পাওয়ায় ছ’-সাত জন যুবক জড়ো হয়ে গালিগালাজ শুরু করে। তাদের দাবি, ব্যবসা করতে গেলে টাকা দিতে হবে। অভিযোগ, তা সত্ত্বেও টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় দুষ্কৃতীরা দানেশ ও কাদেরকে ঘুষি ও লাথি মারে। মঙ্গলবার দানেশ বলেন, ‘‘প্রাণে বাঁচতে উল্টো দিকের সাইকেলের দোকানে আশ্রয় নিই। কিন্তু সেখানে গিয়েও ওরা মারধর করে।’’ পুলিশের টহলদারি ভ্যান এসে পড়ায় দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায় বলে দাবি দানেশের।

Advertisement

এ দিকে, পুলিশ ওই দোকানে তোলাবাজির অভিযোগ মানতে চায়নি। হাওড়া সিটি পুলিশের এক পদস্থ কর্তাও বলছেন, ‘‘তোলা না পেয়ে মারধরের অভিযোগ পাইনি। বিরিয়ানি না পেয়ে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে শুনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব।’’

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, হাওড়ায় প্রকাশ্যে খুন, ছিনতাই বেড়ে যাওয়ার পরেও পুলিশি নিষ্ক্রিয়তা কোন জায়গায় পৌঁছেছে, এই উক্তি তার প্রমাণ।

Advertisement