Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪
Kolkata Firing Incident

মির্জা গালিব স্ট্রিটে গুলির ঘটনায় মূল অভিযুক্ত গ্রেফতার ঝাড়খণ্ড থেকে, ধৃত বেড়ে পাঁচ

শুক্রবার রাত ১২টার পর মির্জা গালিব স্ট্রিটে এক যুবককে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। তাঁর ডান পায়ে গুলি লাগে। সেই ঘটনায় আগেই চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। মূল অভিযুক্ত ধরা পড়লেন বুধবার।

—প্রতীকী চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৯ জুন ২০২৪ ১৫:৫৭
Share: Save:

পার্ক স্ট্রিটের মির্জা গালিব স্ট্রিটে গুলি চলার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সোনাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুর থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বুধবার। এই নিয়ে পার্ক স্ট্রিটের গুলিকাণ্ডে ধৃতের সংখ্যা বেড়ে হল পাঁচ।

শুক্রবার রাত ১২টার পর মির্জা গালিব স্ট্রিটে এক যুবককে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। তাঁর ডান পায়ে গুলি লাগে। কলকাতা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজে ওই যুবককে ভর্তি করানো হয়েছিল। কিন্তু অভিযুক্তেরা ফেরার ছিলেন তখন থেকেই। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, বাইক নিয়ে রেষারেষির ফলে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিল। সেই সূত্রেই এই হামলা। পুলিশকে আক্রান্ত যুবক জানিয়েছিলেন, সোনা নামের এক জন তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালান। সে দিন থেকেই সোনাকে খুঁজছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছিল, শুক্রবার বিকেলে সোনা এবং তাঁর দলবলের সঙ্গে বাইক নিয়ে রেষারেষিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন আক্রান্ত যুবক। রাতে সেই নিয়েই নতুন করে বচসা শুরু হয়েছিল। অভিযোগ, বচসা চলাকালীন আচমকা গুলি চলে। তার পর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান অভিযুক্তেরা।

এই ঘটনার তদন্তের সূত্রে শনিবার রাতে তিন জনকে এবং রবিবার সকালে আরও এক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ধৃতেরা হলেন, ৩১ বছরের আসিফ আহমেদ, কলিন স্ট্রিটের বাসিন্দা, ৪১ বছরের ফারুক খান, মির্জা গালিব স্ট্রিটের বাসিন্দা, ২৪ বছরের আফসার আলি, মির্জা গালিব স্ট্রিটের বাসিন্দা এবং মূল অভিযুক্তের শ্যালক সাব্বির। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখেছিল পুলিশ। প্রথম তিন জনকে গুলি চালাতে দেখা না গেলেও সাব্বিরকে গুলি চালাতে দেখা যায় বলে অভিযোগ। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সোনার খোঁজ পেয়ে থাকতে পারেন তদন্তকারীরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE