Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

হাওড়া, শিয়ালদহে চালু ওয়াই-ফাই পরিষেবা

পার্ক স্ট্রিটের পথে এ বার পূর্ব রেল। ইতিমধ্যেই কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় ‘ফ্রি ওয়াই-ফাই’ পরিষেবা চালু করেছে রাজ্য সরকার। এ বার হাওড়া ও শিয়ালদহ

সুপ্রিয় তরফদার
২৩ মে ২০১৫ ০০:১৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
ওয়াই-ফাই-এ মশগুল।  ছবি: দীপঙ্কর মজুমদার।

ওয়াই-ফাই-এ মশগুল। ছবি: দীপঙ্কর মজুমদার।

Popup Close

পার্ক স্ট্রিটের পথে এ বার পূর্ব রেল।

ইতিমধ্যেই কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় ‘ফ্রি ওয়াই-ফাই’ পরিষেবা চালু করেছে রাজ্য সরকার। এ বার হাওড়া ও শিয়ালদহ স্টেশনে পূর্ব রেলের উদ্যোগে ‘ফ্রি ওয়াই-ফাই’ পরিষেবা চালু হল।

রেল সূত্রের খবর, সম্প্রতি হাওড়া ও শিয়ালদহ স্টেশনে পরীক্ষামূলক ভাবে ‘ফ্রি ওয়াই-ফাই’ পরিষেবা চালু হয়েছে। কয়েক দিন তা পরীক্ষামূলক ভাবেই চলবে। তার পরে পুরোপুরি চালু হবে।

Advertisement

কিন্তু কী এই পরীক্ষামূলক ব্যবস্থা?

রেলের এক কর্তা জানান, প্রথমে বিভিন্ন সংস্থাকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কয়েক মাস অন্তর এই পরিষেবা দেওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পরে সংস্থাগুলি কেমন পরিষেবা দিল তা খতিয়ে দেখবে রেলের কর্তারা। তৈরি হবে রিপোর্ট। সেই রিপোর্ট-এর ভিত্তিতেই যে কোনও একটি সংস্থাকে পুরো দায়িত্ব দেওয়া হবে।

রেল সূত্রে খবর, এখন অধিকাংশ যাত্রীই স্মার্টফোন ব্যবহার করেন। সেই স্মার্টফোনে স্টেশনে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা করে দিতেই রেলের এই উদ্যোগ। তবে প্রতি বারই নিজের ফোন নম্বর থেকে ওয়াই-ফাই রেজিস্ট্রেশন করাতে হবে গ্রাহককে।

কী ভাবে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে?

প্রথমে স্মার্টফোনের ওয়াই-ফাই অপশন অন করতে হবে। তার পরেই ভারতীয় রেল স্বাগত জানিয়ে মোবাইলে একটি পেজ পাঠাবে। সেখানে নিজের ফোন নম্বর দেওয়ার অপশন থাকবে। নম্বর দেওয়ার পরেই এসএমএসের মাধ্যমে চলে আসবে ছ’সংখ্যার একটি কোড নম্বর। তা লেখার পরেই অন হয়ে যাবে ওয়াই-ফাই, বিনা খরচে ইন্টারনেট।

স্টেশন চত্বরে বাড়তি এই পরিষেবা পেয়ে স্বভাবতই খুশি যাত্রীরা। এই ওয়াই ফাই কানেকশনের সাহায্যে একেবারে বিনা খরচে ভারতীয় রেলের অ্যাপসগুলিও ব্যবহার করতে পারবেন যাত্রীরা। ট্রেনের সময় সারণি জানা থেকে শুরু করে টিকিট কাটা— সবই স্মার্টফোন থেকে হয়ে যাবে।

এখন হাওড়া স্টেশনে ওয়াই-ফাইয়ের গতি প্রতি সেকেন্ডে এক এমবিপিএস। পরে এই গতি বাড়তে পারে বলে আশ্বাস রেলের।

তবে এক্ষেত্রে একটি অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কয়েক জন যাত্রী। যাত্রীদের একাংশের অভিযোগ, এক টানা আধ ঘণ্টা ওয়াই-ফাই করার পরে আপনা থেকেই সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এমনকী ১৫ নম্বর প্ল্যাটফর্মের দিকে গেলেও সংযোগ পাওয়া যায় না। ফলে কোনও বড় ফাইল ডাউনলোড অসুবিধা হয়। তবে অন্য এক যাত্রী বলেন, ‘‘ফোনে যে সমস্ত আপডেট চায়, বাড়ি ফেরার সময়ে ওয়াই ফাই অন করেই সব ডাউনলোড করে নিই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement