Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪

মদ্যপানের প্রতিবাদ, জুটল ‘গালিগালাজ’

সল্টলেকে একটি ব্লকের মধ্যে গাড়ি দাঁড় করিয়ে মদ্যপান করার অভিযোগ উঠল চার যুবকের বিরুদ্ধে। শনিবার রাতে, সল্টলেকের এ কে ব্লকের ঘটনা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৪:০৮
Share: Save:

সল্টলেকে একটি ব্লকের মধ্যে গাড়ি দাঁড় করিয়ে মদ্যপান করার অভিযোগ উঠল চার যুবকের বিরুদ্ধে। শনিবার রাতে, সল্টলেকের এ কে ব্লকের ঘটনা।

অভিযোগ, ওই ব্লকের বাসিন্দারা যুবকদের অন্যত্র যাওয়ার অনুরোধ করলে তাঁরা উল্টে তাঁদের সঙ্গে অভব্য ব্যবহার ও গালিগালাজ করেন। তখন বাসিন্দারা ঘিরে ধরলে গাড়ি নিয়ে পালানোর সময়ে এক বাসিন্দাকে ওই যুবকেরা ধাক্কা মারার চেষ্টা করেন বলেও অভিযোগ। এই ঘটনায় বিধাননগর পূর্ব থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। গাড়িটির খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে এক যুবককে। পুলিশ জানায়, তাঁর নাম মণীশ সিংহ। তিনি এ কে ব্লকেই একটি বাড়িতে পেয়িং গেস্ট হিসেবে থাকেন।

এ কে ব্লকের বাসিন্দা, আইনজীবী জয়দীপ সিংহরায় রবিবার বলেন, ‘‘শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা নাগাদ আমি ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে একটি অনুষ্ঠান দেখতে গিয়েছিলাম। ব্লকের পার্কের সামনে গিয়ে দেখি, চার যুবক গাড়ি দাঁড় করিয়ে রাস্তাতেই বোতল থেকে কিছু খাচ্ছে।’’ ওই আইনজীবী তাঁদের ব্লকের মধ্যে প্রকাশ্যে এমন কাজের প্রতিবাদ করেন।

অভিযোগ, এর পরেই চার যুবক অশ্লীল ভাষায় জয়দীপবাবুকে গালিগালাজ করতে শুরু করেন। তিনি পড়শিদের ডাকলে সবাই মিলে ঘটনার প্রতিবাদ করেন। তাঁদের মধ্যে ছিলেন ওই ব্লকের বাসিন্দা মানস ঘোষ। তিনি লক্ষ্য করেন, গাড়িটিতে ‘প্রেস’ লেখা রয়েছে। এক যুবক দাবি করেন, তিনি সাংবাদিক। মানসবাবু তাঁর পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে অভিযুক্ত যুবক দেখাতে পারেননি। মানসবাবুর অভিযোগ, ‘‘অবস্থা বেগতিক দেখে গাড়ি নিয়ে চম্পট দেন ওই যুবকেরা। পালানোর আগে আমাকে প্রায় ধাক্কা মেরে যাচ্ছিলেন।’’

সল্টলেকের বাসিন্দাদের একটা বড় অংশের অভিযোগ, সন্ধ্যা হলেই এখানকার বেশ কিছু ব্লকের পার্কে বাইরে থেকে তরুণ-তরুণীরা এসে বসে থাকেন। তাঁদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায় না। আরও অভিযোগ, অনেককেই প্রকাশ্যে মদ্যপান করতে দেখা যায়। এমনকী কিছু ক্ষেত্রে ব্লকের মধ্যে অন্ধকার রাস্তায় গাড়ি দাঁড় করিয়ে তার ভিতরে ‘আপত্তিকর’ অবস্থাতেও দেখা গিয়েছে যুবক-যুবতীদের। গাড়ির ভিতরেও চলে মদ্যপান।

এ কে ব্লক যে ওয়ার্ডের অন্তর্গত, সেই ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তথা বিধাননগর পুরসভার চেয়ারপার্সন কৃষ্ণা চক্রবর্তী জানান, শনিবারের ঘটনায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। কারা জড়িত, সে সম্পর্কে তথ্য পুলিশকে দেওয়া হয়েছে। বিধাননগরের এক পুলিশকর্তা জানিয়েছেন, অভিযোগ জমা পড়েছে। সব দিকই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গাড়িটির খোঁজ শুরু হয়েছে। বাসিন্দাদের অভিযোগও খতিয়ে দেখা হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE