Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
andaman

Andaman expedition: স্মৃতিচারণে উঠে এল অর্ধশতক পুরনো আন্দামান অভিযানের লড়াই

নৌকায় আন্দামান অভিযান সফল হওয়ার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সোমবার একটি আলোচনাচক্রের আয়োজন করা হয়েছিল কলকাতা প্রেস ক্লাবে।

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ জুলাই ২০২২ ০৭:২৭
Share: Save:

সমুদ্রের দাপটে কখনও মাস্তুল ভেঙেছে, কখনও দাঁড়। কখনও ইনফ্লুয়েঞ্জার সঙ্গে যুঝতে হয়েছে মাঝদরিয়ায়, কখনও কোমরে দড়ি বেঁধে অনাহারে পড়ে থাকতে হয়েছে দাঁতে দাঁত চেপে। দুই অভিযাত্রীর মধ্যে এক জনের আগে থেকে থাকা হার্নিয়া বেড়ে গিয়েছে প্রবল ভাবে। অন্য জনের আবার ছিঁড়ে গিয়েছে ডান হাতের আটটি লিগামেন্ট! বাকি ক’দিন দাঁড় বাইতে হয়েছে সেই বাঁ হাতেই।

তবু লড়াই ছাড়েননি সে সময়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরবিদ্যার গবেষক ও রোয়িংয়ে চ্যাম্পিয়ন, বছর তেইশের পিনাকী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং দিল্লির ছেলে, ভারতীয় নৌসেনার অফিসার জর্জ অ্যালবার্ট ডিউক। ১৯৬৯ সালে দাঁড় টানা ডিঙি নৌকা নিয়ে তাঁরা বেরিয়ে পড়েন আন্দামানের উদ্দেশে। নৌকাটির নাম ছিল ‘কানোজি আংরে’। শিবাজীর নৌ-সেনাপতি তুকোজি আংরের ছেলে কানোজি। একাই ইংরেজদের বহু জাহাজ ধ্বংস করেন। বিখ্যাত সাঁতারু মিহির সেনের পরিকল্পনায় পয়লা ফেব্রুয়ারি গঙ্গার বুকে ওই নৌকা ভাসিয়ে শুরু হওয়া অভিযান সফল হয়েছিল ৮ মার্চ সকালে। আনন্দবাজার পত্রিকা ছিল এই অভিযানের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক। অভিযাত্রীরা ফেরার পরে আনন্দবাজার পত্রিকার দফতরে তাঁদের সংবর্ধনাও দেওয়া হয়।

সেই অভিযান সফল হওয়ার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সোমবার একটি আলোচনাচক্রের আয়োজন করা হয়েছিল কলকাতা প্রেস ক্লাবে। যার উদ্যোক্তা ‘সি এক্সপ্লোরার্স ইনস্টিটিউট’ (এসইআই)। তারা জানিয়েছে, আদতে ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে ওই অভিযানের পঞ্চাশ বছর পূর্তি হলেও কোভিড ও নানা কারণে সেই উদ্‌যাপন সময়মতো করা যায়নি। এ দিন আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়, মিহিরবাবুর এক সময়ের সহযোগী ও এই অভিযানের অন্যতম উদ্যোক্তা অশোক দাশগুপ্ত এবং গোটা ঘটনাটি কাছ থেকে দেখা সাংবাদিক মানস ঘোষ ও চিরঞ্জীব (চিত্তরঞ্জন বিশ্বাস)-সহ অনেকে।

পিনাকীবাবু আজ বেঁচে নেই। তবে, এ দিনের আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন সে দিনের অভিযানের দুই যাত্রীর মধ্যে এক জন, ডিউক। প্রত্যেকেই অভিযান সম্পর্কে স্মৃতিচারণ করেন। দুই অভিযাত্রীর অভিজ্ঞতার পাশাপাশি এ দিন উঠে আসে সেই সময়ে অভিযানের সঙ্গে যুক্তদের রোজকার উদ্বেগ এবং সাফল্যের সঙ্গে আশা-উচ্ছ্বাসের গল্প। ডিউক বলেন, ‘‘ওই অভিযান ভিন্ ধর্মের প্রেমিকার সঙ্গে আমার বিয়ের ক্ষেত্রে বাধা কাটিয়েছে। আমাকে সেলিব্রিটিও করে দিয়েছে। নতুন প্রজন্মও এমন অভিযানে নাম লেখাক। শেষ হলে দেখা যাবে, এই অভিযানই জীবনের সব চেয়ে বড় শিক্ষা হয়ে থাকবে।’’

রোয়িংয়ের একটি প্রতিযোগিতা আয়োজন করারও ঘোষণা করা হয় এ দিনের অনুষ্ঠানে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE