Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ম্যাস্টিকে না, আটকে রাস্তা সারাই

ইঞ্জিনিয়ারদের একাংশের দাবি, রাস্তা বেশি মজবুত করতেই ম্যাস্টিক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যদিও নবান্ন মনে করছে, ম্যাস্টিকের রাস্তা আপাত দৃষ্টিতে ম

দেবাশিস ঘড়াই
০৯ অগস্ট ২০১৮ ০৩:০৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
বেহাল: খানাখন্দে ভরেছে ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাস। ছবি: রণজিৎ নন্দী

বেহাল: খানাখন্দে ভরেছে ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাস। ছবি: রণজিৎ নন্দী

Popup Close

রাস্তা তৈরিতে ম্যাস্টিক অ্যাসফল্ট ব্যবহারের উপরে রাজ্য সরকার সম্প্রতি নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। সম্প্রতি কলকাতা পুরসভা, কলকাতা মেট্রোপলিটন ডেভেলপমেন্ট অথরিটি, পূর্ত দফতর-সহ একাধিক দফতরকে সে ব্যাপারে নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। এ জন্যই আপাতত গোবিন্দ খটিক মোড় থেকে ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাস পর্যন্ত রাস্তা সারানো হবে কি না, তা নিয়ে ধন্দে পড়েছে কলকাতা পুরসভা। তাই মেয়র পরিষদের বৈঠকে রাস্তা সারাইয়ের প্রস্তাব পাশ হওয়া সত্ত্বেও কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না পুর প্রশাসন।

প্রসঙ্গত, গত কয়েক বছর ধরে শহরের রাস্তা তৈরির সময়ে বিটুমিনের পরিবর্তে ম্যাস্টিকই বেশি ব্যবহার করা হচ্ছিল। ইঞ্জিনিয়ারদের একাংশের দাবি, রাস্তা বেশি মজবুত করতেই ম্যাস্টিক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যদিও নবান্ন মনে করছে, ম্যাস্টিকের রাস্তা আপাত দৃষ্টিতে মজবুত হলেও তার আড়ালে সহজেই কারচুপি করা যায়। কারণ প্রশাসনের কর্তাদের একাংশ জানাচ্ছেন, ভাঙা রাস্তার উপরিভাগ মেরামত করার পরেই পিচ বা ম্যাস্টিকের আস্তরণ দেওয়া উচিত। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে মেরামত না করেই ম্যাস্টিকে রাস্তা মুড়ে ফেলা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতেই ম্যাস্টিকের ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রাজ্য সরকার। যদিও এ সংক্রান্ত কোনও নির্দেশিকা এখনও পুরসভায় এসে পৌঁছয়নি।

কিন্তু তাতেই সমস্যায় পড়েছে পুরসভা। পুর আধিকারিকদের একাংশ জানাচ্ছেন, সায়েন্স সিটি সংলগ্ন ওই রাস্তার খারাপ অবস্থার কথা অনেক আগেই জানা গিয়েছিল। সেই মতো এলাকা পরিদর্শনও করেন পুর ইঞ্জিনিয়ারেরা। রাস্তা মেরামতের জন্য রিপোর্টও তৈরি করা হয়। সে কাজে কত খরচ হবে, তা-ও প্রাথমিক ভাবে ঠিক করা হয়। স্থির হয়, স্বাভাবিক যান চলাচলের জন্য ম্যাস্টিক দিয়েই ওই অংশের সারাই হবে। সঙ্গে নিকাশির উপযুক্ত ব্যবস্থাও রাখা হবে। পুরসভা সূত্রের খবর, রাস্তার ওই অংশ সারাতে প্রায় দেড় কোটি টাকা খরচের প্রস্তাব করা হয়। গত মাসে মেয়র পরিষদের বৈঠকে সে প্রস্তাব পাশও হয়ে যায়।

Advertisement

এর পরেই ম্যাস্টিক অ্যাসফল্ট ব্যবহারে রাজ্য সরকারের নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় রাস্তা সারাইয়ে ভাটা পড়েছে। পুরকর্তাদের একাংশের মত, ম্যাস্টিকের রাস্তা বিটুমিন দিয়ে সারানো যায় না। সে ক্ষেত্রে এ ধরনের রাস্তা মেরামতে কী করণীয়? সরকারের কাছ থেকে স্পষ্ট নির্দেশিকা না আসা পর্যন্ত তাই এগোতে চাইছে না পুরসভা। কারণ এ নিয়ে আর বিতর্ক চাইছে না পুরসভা। মেয়র পারিষদ (রাস্তা) রতন দে-র বক্তব্য, ‘‘এ ব্যাপারে আমি কোনও কথা বলব না।’’

এক পুর আধিকারিকের কথায়, ‘‘ভুল পদ্ধতিতে রাস্তা সারাই করলে তো দ্রুত খারাপ হবেই। সেটা তো যিনি সারাই করছেন, তাঁর উপরে নির্ভর করছে কী ভাবে তিনি কাজ করছেন। তবে ম্যাস্টিক দিয়ে সঠিক পদ্ধতিতে রাস্তা মেরামত বা তৈরি করা হলে অবশ্যই তা দীর্ঘদিন স্থায়ী হয়।’’

কলকাতার রাজনীতি, কলকাতার আড্ডা, কলকাতার ময়দান, কলকাতার ফুটপাথ - কলকাতার সব খবর জানতে পড়ুন আমাদের কলকাতা বিভাগ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement