Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আঙুল কেটে পদক প্রত্যাহার

একাধিক দাবিদাওয়া পূরণের দাবিতে গত ১৫ দিন ধরে পঠনপাঠন বন্ধ করে আন্দোলন করছেন প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা।

নিজস্ব সংবাদদাতা 
কলকাতা ০৩ জানুয়ারি ২০২০ ০১:৩০
প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়। —ফাইল চিত্র

প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়। —ফাইল চিত্র

একাধিক দাবিদাওয়া পূরণের দাবিতে গত ১৫ দিন ধরে পঠনপাঠন বন্ধ করে আন্দোলন করছেন প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে মঞ্চে উঠে নিজের আঙুল কেটে রক্ত দিয়ে লিখে প্রতিবাদ জানালেন দুই পড়ুয়া। ওই প্রতীকী প্রতিবাদের পরে উপাচার্যের হাত থেকে স্বর্ণপদক নিতে অস্বীকার করলেন চলতি বছরের সেরা নির্বাচিত ছাত্র সায়ন্তন ভট্টাচার্য এবং মৎস্যবিজ্ঞান বিভাগের সেরা নির্বাচিত ছাত্রী সায়রী চক্রবর্তী।

প্রসঙ্গত, একাধিক দাবিদাওয়া পূরণের দাবিতে আন্দোলন করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চকগড়িয়া কেন্দ্রের মৎস্যবিজ্ঞানের পড়ুয়ারা। এ দিন বেলগাছিয়ার ক্যাম্পাসের অনুষ্ঠানে তিনটি বিভাগের (ভেটেরিনারি, ডায়েরি ও ফিশারিজ) সেরা ছাত্রছাত্রীদের সম্মান জানানো হয়। তবে অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ হয়ে ওঠে দুই কৃতী পড়ুয়ার পদক প্রত্যাহার। উপাচার্য পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, বিধায়ক মালা সাহা এবং রেজিস্ট্রার শ্যামসুন্দর দানার সামনেই সায়ন্তন নিজের আঙুল কাটেন। যা দেখে পূর্ণেন্দুবাবু বলেন, ‘‘ওঁদের আন্দালনকে সমর্থন করছি। আমি চাই, সরকার দ্রুততার সঙ্গে ওঁদের দাবিদাওয়া মেনে নিক।’’ এ দিন বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের ঘরের সামনেও অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হন মৎস্যবিজ্ঞানের পড়ুয়ারা। ক্যাম্পাস জুড়ে মিছিলও করেন তাঁরা।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement