Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Zareen Khan: প্রতারণার অভিযোগ! তদন্তে সাহায্য করার নির্দেশ বলিউড অভিনেত্রী জারিনের ম্যানেজারকে

পুজোয় কলকাতায় মণ্ডপ উদ্বোধনে আসার কথা ছিল জারিনের। এ জন্য তিনি কয়েক লাখ টাকা নেন বলে অভিযোগ। পরে তিনি শহরে আসেননি!

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ জুন ২০২২ ০৯:০৩
Save
Something isn't right! Please refresh.


ফাইল চিত্র।

Popup Close

কয়েক লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগে করা মামলায় বলিউড অভিনেত্রী জারিন খানের ম্যানেজারকে তদন্তে সহযোগিতা করার নির্দেশ দিল কলকাতা হাই কোর্ট। প্রতারণার অভিযোগে চার বছর আগে কলকাতায় মামলা হয়েছিল জারিন এবং তাঁর ম্যানেজার অঞ্জলি গৌতম অথার বিরুদ্ধে। ওই মামলায় বুধবার বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি বিভাসরঞ্জন দে-র ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশ, তদন্তে সহযোগিতা করতে হবে অঞ্জলিকে। এবং প্রতি মাসে এক বার তাঁকে কলকাতায় হাজিরা দিতে আসতে হবে। আদালতের আগের নির্দেশে ১৫ দিন অন্তর আসতে হত অঞ্জলিকে।

২০১৮ সালে কলকাতার বিভিন্ন পুজো মণ্ডপ উদ্বোধন এবং অনুষ্ঠান করতে আসার কথা ছিল ‘হাউসফুল ২’, ‘হেট স্টোরি ৩’-খ্যাত অভিনেত্রী জারিনের। বলিউড অভিনেত্রীকে কলকাতায় আনার দায়িত্ব নিয়েছিল একটি সংস্থা। কিন্তু সেই সময় কোনও কারণবশত শহরে অনুষ্ঠান করতে আসতে পারেননি জারিন। ওই সংস্থার অভিযোগ, শহরে আসার জন্য জারিন এবং তাঁর ম্যানেজারকে অগ্রিম হিসাবে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু অনুষ্ঠান করতে না আসা সত্ত্বেও, তাঁরা ওই টাকা ফেরত দেননি। সংস্থার দাবি, শুধু অভিনেত্রীকে আনা ছাড়াও সে সময় প্রচারের কাজে কয়েক লক্ষ টাকা খরচ হয়।

আইনজীবী অর্কদেব বিশ্বাস জানান, ফিনিক্সের অভিযোগের ভিত্তিতে ২০১৮ সালের ২৭ নভেম্বর জারিন ও অঞ্জলির নামে নারকেলডাঙা থানায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২০ (প্রতারণা), ৪০৬ (বিশ্বাসঘাতকতা), ৫০৬ (হুমকি) এবং ১২০বি (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র) ধারায় এফআইআর রুজু হয়। পরে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১ ধারায় নোটিস পাঠানো হয় অঞ্জলিকে। নোটিস থেকে বাদ পড়েন জারিন। মামলাটি এত দিন চলছিল। এ বছর ২২ ফেব্রুয়ারি আলিপুর কোর্টে জামিনের আবেদন করেন অঞ্জলি। তা খারিজ হয়ে যায়। নিম্ন আদালতের ওই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্টে আসেন জারিনের ম্যানেজার। গত মার্চে শর্তসাপেক্ষে তিনি জামিন পান। আদালত জানায়, তদন্তে সহযোগিতার পাশাপাশি প্রতি ১৫ দিন অন্তর তদন্তকারী অফিসারের কাছে হাজিরা দিতে হবে অঞ্জলিকে।

Advertisement

অঞ্জলির আইনজীবী অর্কদেব আদালতে জানান, তাঁর মক্কেল এই মামলায় প্রধান অভিযুক্ত নন। তিনি তদন্তে সহযোগিতা করছেন এবং করবেন। কিন্তু মাসে দুই বার করে তাঁর পক্ষে কলকাতায় আসা সম্ভব নয়। কর্মজীবনে তিনি খুবই ব্যস্ত। এই আর্জির প্রেক্ষিতে বুধবার আদালত অঞ্জলিকে মাসে এক বার হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে। আইনজীবীর দাবি, প্রধান অভিযুক্ত এই তদন্তে সহযোগিতা করছেন না।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে এই ঘটনার কয়েক মাস পর থেকে একাধিক বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব তৈরি হয় জারিন এবং তাঁর ম্যানেজারের মধ্যে। ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন অঞ্জলি, এই অভিযোগ তুলে মুম্বইয়ে একটি এফআইআর রুজু করেন অভিনেত্রী। তবে কলকাতার পুজোর অনুষ্ঠানের টাকা কে আত্মসাৎ করল চার বছর ধরে তার উত্তর খুঁজছে এ রাজ্যের পুলিশ।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement