×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জুন ২০২১ ই-পেপার

কোচবিহারে পুলিশের নারায়ণী ব্যাটালিয়ন, পাহাড়-জঙ্গলমহলেও নয়া বাহিনীর ঘোষণা মমতার

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১১ নভেম্বর ২০২০ ১৯:১০
মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। ফাইল চিত্র।

মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। ফাইল চিত্র।

রাজ্য পুলিশে নতুন তিনটি ব্যাটালিয়ান গড়া হচ্ছে। বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, কোচবিহার, ঝাড়গ্রাম ও পাহাড়ের জন্য তিনটি আলাদা ব্যাটালিয়ান তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

২০২১-এর ৩১ জানুয়ারির মধ্যে এই ব্যাটালিয়নগুলি তৈরি হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন তিনি বলেন, ‘‘স্থানীয় মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবি মেনে পুলিশ একটা বড় কাজ করেছে। ২০২১ সালের ৩১ জানুয়ারির মধ্যেই ব্যাটালিয়ানগুলির গঠন হয়ে যাবে।’’ তিনটি ব্যাটালিয়নের আলাদা আলাদা নাম দেওয়া হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন তিনি বলেন, ‘‘কোচবিহারের মানুষের মধ্যে নারায়ণী সেনা নিয়ে একটা আবেগ আছে। সেটা মাথায় রেখেই কোচবিহারের নতুন বাহিনীর নাম রাখা হবে নারায়ণী ব্যাটালিয়ান।’’ মমতার ব্যাখ্যা, ‘‘পুলিশে ব্যাটালিয়ন বলা হয়। তাই সেনার বদলে ব্যাটালিয়ান নাম দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়াও পাহাড়ের জন্য গোর্খা ব্যাটালিয়ান এবং জঙ্গলমহল এলাকার জন্য জঙ্গলমহল ব্যাটালিয়ান তৈরি করা হবে।’’ তিনি জানান, এই ব্যাটালিয়নগুলি রাজ্য পুলিশের সঙ্গেই কাজ করবে।

এ দিন করোনা বিধি মেনে কলকাতার কয়েকটি কালীপুজোর উদ্বোধন করেন মমতা। তার আগে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে নতুন ব্যাটালিয়ন গঠন-সহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করেন। এই সব ব্যাটালিয়ন কী ভাবে কাজ করবে তা জানাতে গিয়ে মমতা জানান, পরে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য পুলিশ। কোন ব্যাটালিয়ন কোন কোন এলাকায় দায়িত্ব সামলাবে তা-ও পরে ঠিক হবে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, প্রতিটি ব্যাটালিয়নে ১ হাজার জন করে নিয়োগ করা হবে। তাঁর দাবি, রাজ্যের এই সিদ্ধান্তে পাহাড়বাসী যেমন খুশি হবেন, তেমনই জঙ্গলমহলবাসী, কোচবিহারবাসীরা খুশি হবেন। কারণ, ওই সব এলাকার মানুষের এটা অনেক দিনের দাবি। সেই দাবিই পূরণ করছে তৃণমূল সরকার।

Advertisement
Advertisement