Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Mamata Banerjee

Mamata Women Candidates: সংগঠনে এবং সরকারে মহিলা প্রতিনিধিদের গুরুত্ব বাড়াল তৃণমূল

মমতা বরাবরই গুরুত্ব দিয়েছেন দলের মহিলা নেতা-কর্মীদের প্রতিনিধিত্বে। বিধানসভা এবং লোকসভা ভোটে ৪০ শতাংশের বেশি মহিলা প্রার্থী দেয় তৃণমূল।

বর্ধিত রাজ্য কমিটির বৈঠকে মমতার ভাষণ।

বর্ধিত রাজ্য কমিটির বৈঠকে মমতার ভাষণ। ছবি: পিটিআই।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ মার্চ ২০২২ ১৯:৩৬
Share: Save:

নারীদিবসে দলের বর্ধিত রাজ্য কমিটির বৈঠক ডেকেছিলেন তৃণমূলের সর্বময় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে দলের একাধিক দায়িত্বে মহিলা প্রতিনিধিদের উপরেই ভরসা রেখেছেন মমতা। মঙ্গলবার যেমন দেখা গেল, দলে গুরুত্ব বেড়েছে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, কাকলি ঘোষদস্তিদার, মালা রায় এবং জয়া দত্তের।

Advertisement

রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমাকে তাঁর নিজের হাতে থাকা অর্থ দফতরের ভার দিয়েছিলেন মমতা। পরে দেখা যায় দলের সাংগঠনিক বৈঠকেও চন্দ্রিমার দায়িত্ব বাড়ানো হয়েছে। আগে থেকেই দলের মুখপাত্র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন চন্দ্রিমা। একটা সময় রাজ্য তৃণমূলের মহিলা শাখার সভানেত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন। নতুন দায়িত্ব হিসেবে মঙ্গলবার তাঁকে দলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটিতে রেখেছেন মমতা। একই সঙ্গে চন্দ্রিমাকে রাজ্য তৃণমূলের মহিলা শাখার সভানেত্রী হিসেবেও ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

দলের ছাত্র সংগঠনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের আর এক মহিলা প্রতিনিধি জয়াকে। ছাত্র সংগঠন করে উঠে এসেছিলেন তিনি। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভানেত্রীও ছিলেন। তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘ সময়। তবে এ বার অশোকনগর-কল্যাণগড় পুরসভা থেকে ভোটে দাঁড়িয়ে জিতে কাউন্সিলর হন। মঙ্গলবার জয়াকে তৃণমূলের ছাত্র সংগঠনে আরও গুরুত্ব দিয়ে চেয়ারম্যান করা হয়েছে।

দায়িত্ব বেড়েছে তৃণমূলের দক্ষিণ কলকাতার সাংসদ মালার। তাঁকে দলের রাজ্য মহিলা সংগঠনের কার্যকরী সভানেত্রী পদে দায়িত্ব দিয়েছেন মমতা।

Advertisement

কাকলি আগেও তৃণমূলের সর্বভারতীয় মহিলা সভানেত্রীর দায়িত্বে ছিলেন। মঙ্গলবার তাঁকে সেই দায়িত্বেই বহাল রেখেছেন মমতা।

দলের মহিলা প্রতিনিধিদের উপর মমতা কতখানি ভরসা করেন, মঙ্গলবার তার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন তৃণমূলের সর্বময় নেত্রী। সোমবার বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিনে বিজেপির হইহট্টগোলের প্রসঙ্গ টেনে মমতা বলেন, ‘‘রাজ্যপাল চলে যাচ্ছিলেন। গণতান্ত্রিক সঙ্কট হতে পারত। আমার বোনেরা সংবিধানকে বাঁচিয়ে দিয়েছেন। ভাইয়েরা তো পিছনে ছিলেন।’’

তবে এই প্রথম নয়, মমতা বরাবরই গুরুত্ব দিয়েছেন সংগঠন এবং সরকারে দলের মহিলা নেতা-কর্মীদের প্রতিনিধিত্বে। রাজ্যে বিধানসভা এবং লোকসভা ভোটে ৪০ শতাংশের বেশি মহিলা প্রার্থী দিয়েছিল তৃণমূল। এমনকি, লোকসভাতেও শতাংশের বিচারে এখন সবচেয়ে বেশি মহিলা সাংসদ রয়েছে মমতার দলেরই।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.