Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

TMC: ‘বিজেপি নেতারা যোগাযোগ করছেন’

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৫ অগস্ট ২০২১ ০৭:০৮

ত্রিপুরার বেশ কয়েক জন বিজেপি নেতা তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন বলে আজ দাবি করলেন ব্রাত্য বসু। যদিও নির্দিষ্ট কারও নাম করেননি তিনি। বিজেপির তরফে এই দাবি উড়িয়ে দেন পশ্চিম ত্রিপুরার সাংসদ, কেন্দ্রীয় সামাজিক ন্যায় প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক। ব্রাত্য বসুদের ‘মমতা বন্দ্যাপাধ্যায়ের কোম্পানির কর্মচারী’ বলে উল্লেখ তিনি করে বলেন, ‘‘কর্পোরেট কালচার তো! যে ভাবে বলতে পাঠানো হয়, তাঁরা ত্রিপুরায় গিয়ে সে ভাবেই বলেন৷ বাস্তবের সঙ্গে মিল থাক বা না-থাক।’’

তৃণমূল সারা দেশের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি-বিরোধী ঐক্য গড়ে তুলতে প্রয়াসী হলেও ত্রিপুরায় তারা সিপিএম-কংগ্রেস কাউকে রেয়াত করছে না। আগরতলায় এ দিন এক সাংবাদিক বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বলেন, “কংগ্রেসে তো কিছুই নেই। কিন্তু সিপিএম-ই বা কোথায়? মাত্র যে ৪১ মাস হল!” সিপিএমকে মমতার কাছ থেকে বিরোধী নেতৃত্বদান শেখার পরামর্শ দেন ব্রাত্য। বাম কর্মীদের উদ্দেশে তাঁর আহ্বান, ‘‘নেতারা সঙ্গে না-থাকলে আমাদের দলে আসুন। পশ্চিমবঙ্গে সিপিএম যে ভুল করেছে, সেই ভুল ত্রিপুরায় করবেন না।’’

বিজেপিকে নিশানা করে ব্রাত্য বলেন, “বিপ্লব দেবের জমানায় রাষ্ট্রীয় অত্যাচার এবং দলীয় আক্রমণ মিলেমিশে একাকার হয়ে গিয়েছে। যেখানে যাচ্ছি, মানুষ বলছেন, আমাদের বাঁচান।’’

Advertisement

সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার দাবি করেন, ত্রিপুরায় তৃণমূল এসেছে শুধু নির্যাতিত মানুষের পাশে থাকার জন্য। ব্রাত্যরা জানিয়েছেন, তৃণমূল এ বার ত্রিপুরায় বুনিয়াদি সংগঠনে গুরুত্ব দিচ্ছে। প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে ‘স্বাধীনতা দিবস’, ‘খেলা হবে দিবস’ পালনে উদ্যোগী হয়েছে দল। সাংবাদিকদের সামনে দু’এক মিনিট ফুটবল খেলে সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী ১৬ অগস্ট ত্রিপুরা জুড়ে ‘খেলা হবে দিবস’ পালনের আহ্বান জানান।

আরও পড়ুন

Advertisement