Advertisement
২৯ মে ২০২৪
Autobiography School Principal

আত্মজীবনীর পাতা হারিয়ে পুলিশে নালিশ প্রধান শিক্ষকের

আত্মজীবনীর পাণ্ডুলিপির এক পাতা হারিয়ে যাওয়ায় তার লেখক জিডি করায় প্রথমে অবাকই হন আউটপোস্টের পুলিশ কর্মীরা।

—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

রূপশঙ্কর ভট্টাচার্য
গড়বেতা শেষ আপডেট: ১২ এপ্রিল ২০২৪ ০৭:১০
Share: Save:

আত্মজীবনী লিখছেন। লিখতে লিখতেই হারিয়ে ফেলেছেন লেখার এক পাতা। সন্ধান পেতে পুলিশের কাছে গিয়ে জেনারেল ডায়েরি (জিডি) করলেন আত্মজীবনীকার প্রধানশিক্ষক।

গড়বেতার নোহারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক দেবনারায়ণ দত্ত আঠাশ বছর শিক্ষকতার সঙ্গে যুক্ত। তাঁর বাড়ি পার্শ্ববর্তী বাঁকুড়া জেলার তালড্যাংরা থানার শালতোলা গ্রামে। ইতিমধ্যে তিনি গল্প, নাটক, গবেষণাধর্মী প্রতিবেদন, উপন্যাস-সহ ৬টি বই লিখেছেন। করেন নিয়মিত সাহিত্য চর্চা। বাইকে করেই জেলা সীমানা পেরিয়ে তিনি কর্মস্থল গড়বেতার স্কুলে যাতায়াত করেন। কয়েকমাস আগেই তিনি শুরু করেছেন আত্মজীবনী 'হারানো অতীত' লেখার কাজ। সাদা কাগজে অনেকটা লিখেও ফেলেছেন। লিখতে লিখতেই তিনি হারিয়ে ফেলেছেন একটি পাতা। সেই পাতার শিরোনাম ছিল 'ইচ্ছাপত্র'। যেখানে তিনি তাঁর স্বপ্নে দেখা এক কাল্পনিক ইচ্ছার কথা ব্যক্ত করেছিলেন নিজের মতো করে। সেই 'ইচ্ছাপত্র' পাতাটি হারিয়ে যাওয়ায় খুব মন খারাপ হয়ে যায় লেখক দেবনারায়ণের। বাড়িতে, কর্মস্থল স্কুলে সহ অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও 'ইচ্ছাপত্র' না পাওয়ায় পুলিশের কাছে জিডি (জেনারেল ডায়েরি) করেছেন আত্মীজীবনীকার।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি বাঁকুড়া জেলার সাবড়াকোনের আমডাংরা পুলিশ আউটপোস্টে গিয়ে দেবনারায়ণ লিখিত আবেদনে জানান - 'ইচ্ছাপত্র শিরোনামে আমার এক পাতার একটি লেখা ছিল। ওই ইচ্ছাপত্রটি আমার আত্মজীবনীর উপর যে লেখা চলছে তার একটি অংশ। ইচ্ছাপত্রের বিষয়বস্তু আমার স্বপ্নে দেখা এক কাল্পনিক ইচ্ছার কথা ব্যক্ত করেছি। সেই ইচ্ছাপত্র শিরোনামের লেখাটি হারিয়ে গিয়েছে' (জিডি নম্বর ৫০৮, তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪)।

আত্মজীবনীর পাণ্ডুলিপির এক পাতা হারিয়ে যাওয়ায় তার লেখক জিডি করায় প্রথমে অবাকই হন আউটপোস্টের পুলিশ কর্মীরা। তাঁরা না কি আবেদনকারী লেখকের কাছে এর কারণ জানতে চান। দেবনারায়ণ দত্ত তাঁর আবেদনে এর কারণ উল্লেখ করে বলেন, 'কোন ব্যক্তি যাতে আমার ওই নাম ঠিকানা লেখা পাতাটি কোন ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে না পারে তার জন্য আগাম জানিয়ে রাখা।' শুধু ডায়েরি করেই ক্ষান্ত থাকেননি আত্মজীবনীকার। সমাজমাধ্যমেও সেই পাতা খুঁজে পেতে একটি আবেদন পোস্ট করেছেন তিনি। পুলিশের কাছে করা জিডি'র প্রতিলিপি পোস্ট করে দেবনারায়ণ দত্ত নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বুধবার পোস্ট করে লেখেন - 'ইচ্ছাপত্র শিরোনামে আমার একটি মৌলিক রচনা হারিয়ে গিয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে পুলিশে ডায়েরি করা আছে। অনেক খুঁজেও পাচ্ছি না। কোন সহৃদয় ধর্মাবলম্বী মানুষ এটি ফেরত দিলে বাধিত থাকব।'

কী লেখা ছিল ওই ইচ্ছাপত্রে? দেবনারায়ণবাবু বলেন, "আত্মজীবনীর ওই পাতায় লিখেছি পার্থিব বিষয় সম্পত্তিতে আমি সম্পূর্ণ নিরাসক্ত। পৈতৃক সম্পত্তি থেকে অর্থ কোনকিছুই স্পর্শ করতে চাই না - চাই নির্বিকল্প সর্বত্যাগী জীবনের আস্বাদন। এটা পুরোপুরি কাল্পনিক ইচ্ছার কথা।" এটা তো আবার লিখেও নিতে পারেন? লেখকের উত্তর, "তা পারি, কিন্তু আমার ওই পাতা তো কেউ অপব্যবহারও করতে পারে, তাই পুলিশের কাছে জিডি করে রাখলাম।" কোথায় সেই 'ইচ্ছাপত্র' হারিয়েছে তার আভাসও পুলিশের কাছে দিয়েছেন আত্মজীবনীকার। দেবনারায়ণ দত্ত বলেন, "উক্ত পাতাটি বাড়ি থেকে হারিয়ে গিয়েছে বলে আমি পুলিশকে জানিয়েছি।"

পেয়েছেন সেই পাতা? লেখক বলছেন, "পাইনি বলেই তো ফেসবুকে আবেদন করেছি।"

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Garbeta
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE