×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বিদ্যাসাগরের বীরসিংহ গ্রাম সাজিয়ে তুলতে বৈঠকে ‘উন্নয়ন পর্ষদ’

নিজস্ব সংবাদদাতা
মেদিনীপুর২৭ নভেম্বর ২০২০ ১৫:৪১
বৈঠকে যোগ দিতে মেদিনীপুরে দেব। নিজস্ব চিত্র।

বৈঠকে যোগ দিতে মেদিনীপুরে দেব। নিজস্ব চিত্র।

বিদ্যাসাগরের জন্মস্থান পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের বীরসিংহ গ্রামের জন্য তৈরি ‘উন্নয়ন পর্ষদ’ অ্যাকশন প্ল্যান নিয়ে বৈঠক করল। বৃহস্পতিবার রাত্রে মেদিনীপুরে জেলাশাসকের দফতরে তাঁর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ঘাটালের সাংসদ দীপক অধিকারী (দেব) ও কমিটির অন্য সদস্যরা।

বিদ্যাসাগরের জন্ম শতবর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে গত বছরই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন এই উন্নয়ন পর্ষদের। পর্ষদের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হন পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসক রশ্মি কোমল। বৃহস্পতিবার চন্দ্রকোনা রোডের ফিল্ম সিটিতে শ্যুটিংয়ের কাজ শেষে রাত্রে মেদিনীপুর পৌঁছে যান দেব। সেখানে জেলা শাসকের দফতরের চত্বরে ভেষজ উদ্যানে আয়োজিত এই বৈঠকে যোগ দেন। বৈঠকে জেলাশাসক ছাড়াও ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার দীনেশ কুমার, জেলা পরিষদ সহ সভাধিপতি অজিত মাইতি, অতিরিক্ত জেলাশাসক, মহকুমাশাসক, ঘাটালের বিধায়ক শঙ্কর দোলই ও অন্যান্য আধিকারিকরা।

বীরসিংহ গ্রামকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তোলার জন্য কী কী করা হবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। রশ্মি বলেন, উন্নয়ন পর্ষদের কাজের জন্য নোটিফিকেশনের পর ইঞ্জিনিয়াররা কাজ শুরু করেছেন। জমির  ম্যাপ তৈরি-সহ বিভিন্ন পরিকাঠামোগত উন্নয়নের কাজ করা হবে। অ্যাকশন প্ল্যান তৈরি করে প্রজেক্ট রিপোর্ট তৈরি করে অর্থ দফতরের অনুমোদনের জন্য পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু রয়েছে।”

Advertisement

বৈঠকে দেব তাঁর পক্ষ থেকে একাধিক প্রস্তাব দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। অজিত বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে ইতিমধ্যেই বীরসিংহ গ্রামের উন্নয়নের কাজ শুরু হয়েছে।”

এ দিকে জঙ্গলমহল কাপ ২০২০ সমাপ্তি অনুষ্ঠানে শালবনিতে উপস্থিত থাকার জন্য দেবকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ১১ ডিসেম্বর তিনি ওই অনুষ্ঠানে হাজির থাকবেন।

Advertisement