Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

রাস্তায় ধস নেমে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা
দাসপুর ২৭ অগস্ট ২০২০ ০২:৩১
দাসপুরের মহিষঘাটা সেতু সংযোগকারী রাস্তায় ধস। নিজস্ব চিত্র

দাসপুরের মহিষঘাটা সেতু সংযোগকারী রাস্তায় ধস। নিজস্ব চিত্র

পলাশপাই খালের উপর সেতুর সংযোগকারী রাস্তায় ধস নেমে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেল উত্তরবাড়-শিবরা সড়কে। বুধবার সকালে দাসপুর-২ ব্লকের মহিষঘাটায় আচমকাই ফাটল দেখা যায় সেতুর সংযোগকারী রাস্তায়। মুহুর্তের মধ্যেই প্রায় চল্লিশফুট রাস্তা পুরোপুরি ভেঙে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় সেতুটিও। তার জেরে ওই ব্লকের খেপুত ও দুধকোমরা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

এ দিন এলাকা পরিদর্শনে যান জেলা পরিষদের সেচ কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি, দাসপুরের বিধায়ক মমতা ভুঁইয়া,পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি আশিস হুতাইত-সহ সেচ দফতরের পদস্থ আধিকারিকেরা। বিকল্প যোগাযোগ ব্যবস্থা হিসেবে পলাশপাই খালের নৌকার ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ দিন সকাল থেকেই রাস্তায় ফাটল দেখা দিয়েছিল। এই ঘটনা সামনে আসতেই সকাল থেকেই শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। ভিড় করেন বহু মানুষ। ঘন্টাখানেকের মধ্যেই রাস্তার একটি অংশ পুরোপুরি ভেঙে কয়েক ফুট নীচে বসে যায়। আলাদা হয়ে যায় সেতুটি। রাস্তায় ধসের কারণে সেতুর কাঠামোও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

Advertisement

প্রশাসন জানিয়েছে, দাসপুর-২ ব্লকের মহিষঘাটায় পলাশপাই খালের উপর পাকার সেতুটি বছর পনেরো আগে তৈরি হয়েছিল। খালের এক পাড়ে খেপুত পঞ্চায়েত। অন্য পাড়ে দুধকোমরা পঞ্চায়েত। দুই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বাসিন্দাদের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম উত্তরবাড়-শিবরা সড়কে মহিষঘাটা সেতু। পাকার সেতুর কাঠামোটি লোহার। জেলা পরিষদের আর্থিক সহযোগিতায় তৈরি হয়েছিল এই সেতু। পলাশপাই বাঁধের উপর ওই রাস্তাটিও পিচের। নিয়ম করে প্রতিদিন ওই রাস্তায় স্থানীয় কুলটিকরি, দুধকোমরা, কাশিয়াড়া, গোপীগঞ্জ, শিবরা সহ কুড়ি-পঁচিশটি গ্রামের মানুষ যাতায়াত করেন। করোনা পরিস্থিতিতে আক্রান্তদের ওই রাস্তা দিয়েই হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় সমস্যায় পড়েছেন কয়েক হাজার বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রের খবর, এখন এমনিতেই পলাশপাই খালে জলের পরিমাণ বেশি। খালটি সংস্কার হওয়ায় আগের চেয়ে গভীরও হয়েছে। জলধারণ ক্ষমতাও বেড়েছে। বাঁধের রাস্তার উপর অতিরিক্ত পণ্যবাহী গাড়িও চলাচল করে। সবমিলিয়ে এই দুর্ঘটনা। দাসপুর-২ বিডিও অনির্বাণ সাহু বলেন, “আপাতত নৌকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাস্তাটি সংস্কারের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হয়েছে।”

আরও পড়ুন

Advertisement