×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

ভাইরাস মুক্তিতে টাকার ‘গঙ্গাস্নান’

নিজস্ব সংবাদদাতা
খেজুরি ৩১ মার্চ ২০২০ ০২:০৪
এ ভাবেই জীবাণুমুক্ত হচ্ছে টাকা!  সোমবার। নিজস্ব চিত্র

এ ভাবেই জীবাণুমুক্ত হচ্ছে টাকা! সোমবার। নিজস্ব চিত্র

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ভয় ঢুকছে সকলের মধ্যেই। সেই ভয়ের চোটে টাকাকেও জীবাণুনাশক মিশ্রিত জলে ধুয়ে শুকচ্ছেন ব্যবসায়ী!

সম্প্রতি এমন ছবিই সামনে এসেছে খেজুরি-২ ব্লকের হলুদবাড়ি বাজারে।সেখানে এক ভূষিমাল ব্যবসায়ী শুধু টাকা জীবাণুনাশক মিশ্রিত জলে ধুচ্ছেই না, তা কাগজের উপরে রেখে শুকনো-ও করছেন।

হলুদবাড়ি স্কুল মোড় দোকান রয়েছে দোকানদার ননীগোপাল সাউের। সম্প্রতি তাঁকে দেখা গিয়েছে লেনদেন করা টাকা জলে ধুয়ে নিতে। কয়েন তো রয়েছেই, নোটও ধুতে বাদ দিচ্ছেন না ননীগোপাল।সম্প্রতি ননীর ওই কাণ্ডের একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে।তাতে দেখা গিয়েছে, দোকানের দরজার সামনে একটি পাত্রে জীবাণুনাশক মিশ্রিত জল রাখা রয়েছে। ক্রেতাদের কাছ থেকে পাওয়া নোট তিনি ওই পাত্রের জলে ধুয়ে নিচ্চেন। পরে ভিজে যাওয়া টাকা দোকানের মধ্যে খবরের কাগজের ভাঁজে রেখে শুকিয়েও নিচ্ছেন।

Advertisement

ননীগোপালের কথায়, ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ভয়ে এটা করছি। আর দোকানে আসা ক্রেতাদের সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার পর দোকানে উঠতে দেওয়া হচ্ছে।’’ ননীর ওই কাণ্ড দেখে অনেকে কটাক্ষ করে বলছেন, ‘‘এ যেন নোটের গঙ্গা জলে ঢুবে পাপমোচন হচ্ছে।’’

কিন্তু টাকা থেকে কী সংক্রমণ ছড়াতে পারে? আর জীবাণুনাশক মিশ্রিত জলে ধুলেই কি ভাইরাস থেকে নিষ্কৃতী পাওয়া সম্ভব? এ ব্যাপারে কাঁথি হাসপাতালের সুপার সব্যসাচী চক্রবর্তী বলেন, ‘‘মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু এভাবে নোট ধুয়ে ভাইরাস থেকে পুরোপুরি মুক্তি পাওয়া সম্ভব নয়। সঠিক পদ্ধতি হল টাকা লেনদেন কিছু সময় পরপর হাত ভাল করে ধুয়ে নেওয়া।’’

Advertisement