Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
COVID-warriors

স্বাধীনতা দিবসে সংবর্ধনা করোনা-যোদ্ধাদের  

জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, এ বার স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে কয়েকজন করোনা- যোদ্ধাকে সংবর্ধিত করা হবে। তালিকায় থাকবেন করোনা-জয়ী জেলার দুই বিডিও-ও। 

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মেদিনীপুর শেষ আপডেট: ০১ অগস্ট ২০২০ ০১:৫৮
Share: Save:

করোনা অতিমারির মধ্যেই এ বার আসছে স্বাধীনতা দিবস। যাবতীয় বিধি মেনে দিনটি পালন হবে পশ্চিম মেদিনীপুরেও। জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। সম্প্রতি মেদিনীপুরে কালেক্টরেটে এক বৈঠকে করোনা আবহে দিনটি কেমনভাবে পালন হবে, তার প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে। শীঘ্রই আর এক বৈঠকে ১৫ অগস্টের অনুষ্ঠানসূচি চূড়ান্ত হবে। জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, এ বার স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে কয়েকজন করোনা- যোদ্ধাকে সংবর্ধিত করা হবে। তালিকায় থাকবেন করোনা-জয়ী জেলার দুই বিডিও-ও।

Advertisement

জেলাশাসক রশ্মি কমল মানছেন, ‘‘স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে কয়েকজন করোনা-যোদ্ধাকে সংবর্ধিত করা হবে।’’ বেশি জমায়েত করা যাবে না। তাই প্রতীকীভাবে জেলার দশজন করোনা- যোদ্ধাকে সংবর্ধিত করার পরিকল্পনা রয়েছে জেলা প্রশাসনের। দুই বিডিও-র পাশাপাশি সংবর্ধিত হবেন করোনা-জয়ী দুই স্বাস্থ্যকর্মী, দুই পুলিশকর্মী ও চারজন সাধারণ করোনা-যোদ্ধা।

সম্প্রতি করোনা সংক্রমিত হন চন্দ্রকোনা-১ এর বিডিও অভিষেক মিশ্র এবং কেশিয়াড়ির বিডিও সৌগত রায়। দু’জনই ইতিমধ্যে করোনা জয় করে যে যাঁর ব্লকে ফিরেছেন। তাঁরা সংবর্ধিতও হয়েছেন। দুই বিডিওরই চিকিৎসা হয়েছে শালবনি কোভিড হাসপাতালে। জেলা প্রশাসনের এক সূত্রে খবর, দুই বিডিওর কাছেই কলকাতার হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর প্রস্তাব ছিল। স্বাস্থ্য দফতরের তরফে তাঁদের সে ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাসও দেওয়া হয়েছিল। দু’জনই অবশ্য জেলার চিকিৎসা ব্যবস্থায় আস্থা রেখেছেন। সুস্থ হয়ে ফেরার সময় শালবনির ওই হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের কুর্নিশ জানিয়েছেন দুই বিডিও। কেশিয়াড়ির বিডিও সৌগত বলেছেন, ‘‘আমরা, বিডিও-রা, আমাদের অফিসের কর্মীদের নিয়ে কোভিডের সঙ্গে অন্য রকমভাবে লড়ছি ঠিকই, কিন্তু আপনারা (স্বাস্থ্যকর্মীরা) একদম সামনের সারিতে থেকে লড়ছেন।’’

প্রতি বার মেদিনীপুরে কালেক্টরেটের মাঠে ধুমধাম করে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান হয়। এ বার কার্যত ঘরোয়াভাবে অনুষ্ঠান হবে। ১৫ অগস্ট সকালে কালেক্টরেটে জাতীয় পতাকা উত্তোলন হবে জেলা পুলিশের উপস্থিতিতে। পুলিশই গার্ড অফ অনার দেবে। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এ বার থাকছে না। সামান্য অনুষ্ঠান হবে। করোনা আবহে দেশের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে নতুন নির্দেশিকা এনেছে কেন্দ্রও। জমায়েত এড়িয়ে, প্রযুক্তির সাহায্যে বিশেষ এই দিনটি পালন করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। জানা যাচ্ছে, পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে কালেক্টরেটের অনুষ্ঠান স্থানীয় কেবল্‌ চ্যানেলে সম্প্রচার করা হতে পারে।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.