Advertisement
০৫ মার্চ ২০২৪
Dharna

ফিরিয়ে দাও আমার বৌ! শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় বসে কী ফল পেলেন কেশপুরের যুবক?

শ্বশুরবাড়ি থেকে বাপের বাড়ি গিয়ে আর ফিরছেন না স্ত্রী। অনেক অনুনয়-বিনয়েও কাজ হয়নি। তাঁকে ফেরত পেতে রবিবার পোস্টার হাতে নিয়ে ধর্নায় বসেছিলেন এক যুবক।

তখনও শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্না চালিয়ে যাচ্ছেন ওই যুবক।

তখনও শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্না চালিয়ে যাচ্ছেন ওই যুবক। — নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
পিংলা শেষ আপডেট: ২৮ নভেম্বর ২০২২ ১১:৫১
Share: Save:

শ্বশুরবাড়ি থেকে বাপেরবাড়ি গিয়ে আর ফিরছেন না স্ত্রী। অনেক অনুনয়-বিনয়েও কাজ হয়নি। তাঁকে ফেরত পেতে রবিবার পোস্টার হাতে নিয়ে ধর্নায় বসেছিলেন এক যুবক। এই ঘটনা ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পিংলা থানার জামনা এলাকায়। চোখের সামনে এমন কাণ্ড ঘটতে দেখে ভিড় জমে যায় ধর্নাস্থলে।

বছর দেড়েক আগে পিংলার জামনার এক তরুণীর সঙ্গে বিয়ে হয় মেদিনীপুর জেলার কেশপুর থানার আনন্দপুরের এক যুবকের। ওই যুবকের দাবি, মাস ছয়েক আগে তাঁর স্ত্রী এসেছিলেন বাপের বাড়িতে। তাঁর বক্তব্য, এক নিকট আত্মীয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে বাপের বাড়িতে যান তাঁর স্ত্রী। এর পর থেকে তিনি আর শ্বশুরবাড়িতে ফিরছেন না বলে অভিযোগ ওই যুবকের। তাঁর বক্তব্য, স্ত্রীকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে প্রাথমিক ভাবে তিনি অনেক অনুনয়-বিনয় করেছিলেন। কিন্তু তাঁর স্ত্রী রাজি হননি। শেষ পর্যন্ত স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে রবিবার মোক্ষম অস্ত্র প্রয়োগ করেন ওই যুবক। পিংলার জামনায় তাঁর শ্বশুরবাড়ির সামনে উপস্থিত হয়ে হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে ধর্নায় বসেন তিনি। সেই প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘‘আমি আমার বৌকে ফেরত চাই।’’

এই ঘটনা চাউর হতেই আশপাশের বাসিন্দারা এলাকায় ভিড় জমান। খবর পৌঁছয় থানাতেও। পিংলা থানার পুলিশও ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিষয়টি খতিয়ে দেখে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, যুবকের শেষ অস্ত্র প্রয়োগও বৃথা গিয়েছে। ধর্না দিলেও স্বামীর কাছে ফিরতে নারাজ স্ত্রী। ফলে ঘণ্টা দু’য়েকের মধ্যেই উঠে যায় ধর্না।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE