Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
Arrested of Murder

‘প্রেমিকা’কে খুনে পুলিশ হেফাজত

পুলিশ জানিয়েছে, মিঠুর বাড়ি দৌলতাবাদের হাজিপাড়া গ্রামে এবং তার প্রেমিকা সাবিয়া খাতুনের বাড়ি হাজিপাড়ার পড়শি গ্রাম মির্জাপুরে। বছর চারেক ধরে তাঁদের প্রেমের সম্পর্ক।

—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বহরমপুর শেষ আপডেট: ১৩ মে ২০২৪ ০৮:১৫
Share: Save:

প্রেমিকাকে খুনের অভিযোগে ধৃত মানোয়ার সরকারের পুলিশ হেফাজত হল। রবিবার তাকে বহরমপুরে মুখ্য বিচার বিভাগীয় বিচারকের এজলাসে তোলা হলে ৮ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে মানোয়ার ওরফে মিঠু সমাজ মাধ্যমে প্রেমিকার স্ট্যাটাস দেখে সন্দেহ শুরু করেছিল। আর তা থেকেই বচসার জেরে খুনের ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, মিঠুর বাড়ি দৌলতাবাদের হাজিপাড়া গ্রামে এবং তার প্রেমিকা সাবিয়া খাতুনের বাড়ি হাজিপাড়ার পড়শি গ্রাম মির্জাপুরে। বছর চারেক ধরে তাঁদের প্রেমের সম্পর্ক। মিঠু কেরলে রাজমিস্ত্রির কাজ করত। পুলিশ মিঠুর কাছে থেকে জানতে পেরেছে দিন দুয়েক আগে কেরল থেকে সে বাড়ি ফিরেছে। এর পরে সাবিয়ার সমাজ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেখে তার সন্দেহ হয়। তার ধারণা তৈরি হয়, সাবিয়া অন্যের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছে। যাকে কেন্দ্র করে ঘটনার আগের দিন তাঁদের দু’জনের মধ্যে ফোনে তুমুল ঝামেলা হয়। আর শনিবার গ্রাম থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে দৌলতাবাদে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এসেছিল সাবিয়া। সেখান থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে দৌলতাবাদ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে আরআই অফিসের সামনের নির্জন গলি রাস্তায় সাবিয়াকে পেয়ে মিঠু কথা বলতে শুরু করে। সেখান বচসা শুরু হয়। কোমর থেকে ছুরি বের করে সাবিয়াকে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে। পুলিশ সাবিয়াকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যালে পাঠালে সেখানে চিকিৎসকেরা তরুণীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Berhampore Murder
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE