Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

তৃণমূলকে ভোট না দিলে এ বার খুনের হুমকি দিয়ে দেওয়াল লিখন

নিজস্ব সংবাদদাতা
শান্তিপুর ২০ ডিসেম্বর ২০২০ ১৩:১৩
এই দেওয়াল লিখন ঘিরে চাঞ্চল্য শান্তিপুরে। নিজস্ব চিত্র।

এই দেওয়াল লিখন ঘিরে চাঞ্চল্য শান্তিপুরে। নিজস্ব চিত্র।

নদিয়ার শান্তিপুরে একটি দেওয়াল লিখন ঘিরে রবিবার সকাল থেকে চাঞ্চল্য। শান্তিপুরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ধোপা পাড়ায় দেওয়াল লিখনটি ঘিরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। সাদা দেওয়ালের উপর নীল কালিতে লেখা হয়েছে, ‘তৃণমূলের বিরুদ্ধে একটা ভোট দিলে রক্ত গঙ্গা বইবে’। বিষয়টি নিয়ে তৃণমূল বিজেপি একে অপরকে দোষারোপ করতে শুরু করেছে।

গত লোকসভা ভোটে শান্তিপুর আসনে জেতেন বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার। এলাকায় বিজেপির প্রভাব বাড়ছে বলেই মত রাজনৈতিক মহলের। এর পর শনিবার মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় শুভেন্দু অধিকারির বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর শান্তিপুরের রাজনৈতিক সমীকরণেও তার প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। এই দেওয়াল লিখন তারই ফল বলে দাবি বিজেপির।

সকালে দেখা যায় ওই দেওয়ালে লেখা রয়েছে, 'তৃণমূলের বিরুদ্ধে একটা ভোট দিলে রক্ত গঙ্গা বইবে। বিজেপিকে একটা ভোট দেওয়ার চিন্তা করলে নিজের প্রিয়জনের শ্রাদ্ধের ব্যবস্থা করে রাখবেন।– মনোজ সরকার'।

Advertisement

এ রাজ্যে ভোটের দেওয়াল লিখনে শাসক ও বিরোধীরা পরস্পরকে নানা ভঙ্গিমায় আক্রমণ করেন। মাঝে মধ্যে মজার উপাদানও খুঁজে পাওয়া যায় সে সবে। কিন্তু দেওয়াল লিখনে সরাসরি খুনের হুমকি বিরল ঘটনা।

জগন্নাথ সরকার বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেস বুঝে গিয়েছে, এবার আর তারা ক্ষমতায় ফিরতে পারবে না। বুঝে গিয়েছে, মানুষ এবার আর তাদের ভোট দেবে না। তাই এই দেওয়াল লিখন। তৃণমূল ভাবছে, সন্ত্রাস করে ভোটে জিতবে। কিন্তু এই ভাবে ভোটে জেতা যাবে না। আমরা পুলিশ প্রশাসনকে বলছি, দোষীদের চিহ্নিত করে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। না হলে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামব।”

শান্তিপুর তৃণমূল কংগ্রেসের সহসভাপতি অরবিন্দ মৈত্র জানিয়েছেন, তাঁরা এই ধরনের দেওয়াল লেখেন না। আর এই ধরনের দেওয়াল লিখন বরদাস্তও করা হবে না। এটা মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা। কিছু লোক তৃণমূলের বদনাম করার জন্য এই কাজ করছে। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যাঁর নাম করে দেওয়াল লেখা হয়েছে, স্থানীয় তৃণমূল নেতা সেই মনোজ সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি।

আরও পড়ুন

Advertisement