Advertisement
২৯ নভেম্বর ২০২২
Missing

Murshidabad: বিয়ের এক দিন পরেই নিখোঁজ স্বামী, শ্বশুর বাড়িতে তালা ঝোলাল নববধূর পরিবার

স্থানীয় সূত্রে খবর, গত ৩ অগস্ট বুধবার বাবুপাড়ার বাসিন্দা এক তরুণীর সঙ্গে ক্যাপ্টেনপাড়ার বাসিন্দা প্রসেনজিৎ পালের বিয়ে হয়।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুর্শিদাবাদ শেষ আপডেট: ০৮ অগস্ট ২০২২ ২৩:০১
Share: Save:

বিয়ের এক দিন পরে উধাও স্বামী। এটিএম থেকে টাকা তুলতে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফেরেননি তিনি। তাঁদের মেয়ের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে, এই অভিযোগ তুলে নববধূর বাপের বাড়ির লোকেরা শ্বশুরবাড়িতে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন। সোমবার মুর্শিদাবাদের ডোমকলের লক্ষ্ণীনাথপুর ক্যাপ্টেন পাড়ায় ঘটনাটি ঘটেছে। গত ৬ অগস্ট শনিবার থেকে যুবকের খোঁজ না মেলায় রবিবার ডোমকল থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করা পরিবারের পক্ষ থেকে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Advertisement

স্থানীয় সূত্রে খবর, গত ৩ অগস্ট বুধবার বাবুপাড়ার বাসিন্দা এক তরুণীর সঙ্গে ক্যাপ্টেনপাড়ার বাসিন্দা প্রসেনজিৎ পালের বিয়ে হয়। ৪ অগস্ট বাড়িতে বৌভাতের আয়োজন করা হয়েছিল। পর দিন অর্থাৎ শুক্রবার সবই ঠিক ছিল বাড়িতে। এর পর শনিবার নিখোঁজ হয়ে যান প্রসেনজিৎ। দিনভর খোঁজাখুজির পরেও তাঁর সন্ধান মেলেনি। এর পরেই থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন প্রসেনজিতের মা।

এই ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবেই হতবাক নববধূ। তাঁর দাবি, প্রসেনজিতের অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। বিয়ের পর সেখানেই গিয়েছেন তিনি। গোটা ঘটনা বাপের বাড়িতে জানান বধূ। এর পর সোমবার বধূর বাপের বাড়ির লোকজন প্রসেনজিতের বাড়ির সামনে এসে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। তাঁদের দাবি, মেয়েকে ঠকানো হয়েছে। মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে তালাও ঝুলিয়ে দেন তাঁরা। যদিও প্রসেনজিতের মায়ের দাবি, ছেলে কোথায় গিয়েছে, তা তাঁর জানা নেই। তাঁর কথায়, ‘‘আমরা ছেলের খোঁজ পাচ্ছি না। থানায় মিসিং ডায়েরি করেছি।’’

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, প্রসেনজিতের খোঁজ করা হচ্ছে। পরিবারের সদস্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করে জানার চেষ্টা হচ্ছে, অন্য কারও সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক ছিল কি না। এরই পাশাপাশি, প্রসেনজিতকে তাঁর কোনও শত্রু অপহরণ করেছেন কি না, তা-ও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.