Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Dhanteras: মন্দা কাটিয়ে ধনতেরাসে সোনাপট্টি ঝলমলে

নিজস্ব সংবাদদাতা
বহরমপুর, বেলডাঙা ০২ নভেম্বর ২০২১ ০৯:১৩
গয়নার দোকানে।

গয়নার দোকানে।
নিজস্ব চিত্র।

২০১৯ সালে ধনতেরসের সময়ে সোনার বাজার চড়া ছিল, পরের বছর করোনা সংক্রমণ, লকডউন ছিল। যার জেরে ওই দু’বছর সোনার গয়নার বাজারে খুব মন্দা ছিল। এ বারে সেই মন্দা কাটিয়ে গ্রাহকরা ভিড় জমাচ্ছেন বেলডাঙা ও বহরমপুরের সোনাপট্টিসহ বিভিন্ন গয়নার শোরুম ও দোকানগুলিতে। ব্যবসায়ীরা জানাচ্ছেন, আজ মঙ্গলবার ধনতেরস। তার আগে গত রবিবার থেকে ধনতেরস উপলক্ষে বিভিন্ন গয়নার দোকান ও শোরুম নানা রকম অফার দিয়েছেন। কারও অফার ধনতেরসের পরের দিন শেষ হবে, কেউ বা কালীপুজো ভাইফোটা পর্যন্ত নানা ধরনের ছাড়ের অফার দিচ্ছেন। আর এখন থেকে ধনতেরসে গয়না কিনতে ভিড় জমাচ্ছেন বাসিন্দারা। ব্যবসায়ীদের আশা মঙ্গলবার ধনতেরসের দিন বেশি ভিড় জমাবেন বাসিন্দারা।

বেলডাঙা বঙ্গীয় স্বর্ণশিল্পী সমিতির সম্পাদক অভিমন্যু কর্মকার বলেন, “আগের থেকে শিল্পীরা কাজ কিছুটা পাচ্ছেন। পুজো ও ধনতেরাসের কয়েক দিন আগে থেকে কাজ এসেছে।” মূলত কানের দুল, নাকছাবি, আংটি বিক্রি বেশি। অনেক ক্ষেত্রে সেটা সোনা বাদ দিয়ে রুপোর গয়নাও কিনবেন বলে ঠিক করেছেন। রুপোর সিঁদুরের কৌটো, পেন, বাটি, থালা, চামচও বিক্রি হবে ভেবে কেউ কেউ তা তুলেও রেখেছেন। তবে কতটা বিক্রি হবে তা কেউ জানে না।

বহরমপুরের বাসিন্দা মেঘনা মণ্ডল বলেন, ‘‘মানুষের বিশ্বাস রয়েছে ধনতেরসে একট টুকরো গয়না কিনলে লক্ষ্মীদেবী পরিবারে সৌভাগ্য বয়ে আনেন। তাই অনেকেই ধনতেরসের দিন অন্ততপক্ষে এক টুকরো গয়না কেনার চেষ্টা করেন।’’ প্রাবন্ধিক সায়ন্তন মজুমদার বলেন, ‘‘ধনতেরস অবাঙালি সংস্কৃতি। সেটা এখন বাঙালি সংস্কৃতিকে ঢুকে পড়েছে।’’

Advertisement

বহরমপুরের সোনার ব্যবসায়ীরা জানান, ২০১৯ সালে ধনতেরসের সময়ে মানুষের হাতে নগদ টাকার যোগান কম থাকার পাশাপাশি সোনার দাম বেশি ছিল। সে বারে হলমার্ক যুক্ত ১০ গ্রাম গয়না সোনার দাম ছিল ৪৮ হাজার। গত বছর করোনার পাশাপাশি হলমার্ক যুক্ত ১০ গ্রাম গয়না সোনার দাম ছিল প্রায় ৫০ হাজার টাকা। এ বারে সেই সোনার দাম রয়েছে ৪৬ হাজার ৬০০-৭০০ টাকা। ফলে এবারে গত দু’বছরের তুলনায় সোনার দাম কম রয়েছে। ব্যবসায়ীরা জানান, এবারে গত রবিবার থেকে খরিদ্দার বাজারে ভিড় জমাচ্ছেন।

বহরমপুর শহরে গয়নার শোরুম ও দোকানের সংখ্যা প্রায় দেড়শোটি। মুর্শিদাবাদ জেলা বুলিয়ান মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক তথা বহরমপুরের স্বর্ণ ব্যবসায়ী রাজীব ধর, ‘‘বিগত দু’বছরের তুলনায় এবারে ধনতেরসের বাজার খুবই ভাল। বিগত দু’বছরের তুলনায় এবারের ধনতেরসের বাজারে ৩০-৪০ শতাংশ খরিদ্দার বাড়তি আসছে।’’ তাঁর দাবি, ‘‘এ বারে দুর্গাপুজোর সময় থেকে সোনার গয়নার বাজার ভাল। অনেকেই ধনতেরসের ভিড় এড়াতে আগে থেকে গয়না বুকিং করেছেন। আমাদের শোরুমে ধনতেরসের অফার কালীপুজো কাটিয়ে একেবারে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত রেখেছি। যাঁরা ধনতেরসের ভিড় এড়াতে চান, তাঁরা ৮ নভেম্বর পর্যন্ত অফার পাবেন।’’

আরও পড়ুন

Advertisement