Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Development works

দুয়ারে ভোট, চিন্তা ২০০ কোটি খরচে

সব মিলিয়ে এই দু’শো কোটি টাকা খরচের জন্য ত্রিস্তর পঞ্চায়েত এখন থেকে তৎপর না হলে লোকসভা নির্বাচনের বিধিনিষেধের গেরোয় পড়তে পারে। যার জেরে তখন কাজ করতে পারবে না।

—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

সামসুদ্দিন বিশ্বাস
বহরমপুর শেষ আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩ ০৭:৩৫
Share: Save:

নির্বাচন শেষে বোর্ড গঠন করে সবে ধাতস্ত হচ্ছে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত। এরই মধ্যে দুয়ারে কড়া নাড়ছে লোকসভা নির্বাচন। পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে ভাল ফল হওয়ায় কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ফেব্রুয়ারি মাসেই লোকসভা নির্বাচন ঘোষণা করাতে পারে বলে জল্পনা তৈরি হয়েছে। এমন সময়ে জেলার উন্নয়নের জন্য পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের প্রায় একশো কোটি টাকা এসেছে। আগের একশো কোটি টাকা ছিল। সব মিলিয়ে এই দু’শো কোটি টাকা খরচের জন্য ত্রিস্তর পঞ্চায়েত এখন থেকে তৎপর না হলে লোকসভা নির্বাচনের বিধিনিষেধের গেরোয় পড়তে পারে। যার জেরে তখন কাজ করতে পারবে না। তবে জেলা প্রশাসনের কর্তারা জানান, তাঁরাও বসে নেই। পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের টাকা খরচ করার জন্য ত্রিস্তর পঞ্চায়েতকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, সেই টাকা যাতে সময় মতো খরচ হয় সে জন্য জেলা প্রশাসনের তরফে নজরদারি চালানো হচ্ছে। মুর্শিদাবাদের জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র বলেন, ‘‘পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের টাকা দ্রুত খরচ করার কাজ চলছে। যে সব গ্রাম পঞ্চায়েতে টাকা খরচে পিছিয়ে থাকছে তাদের নিয়ে বৈঠক করে দ্রুত টাকা খরচ করার কথা বলা হচ্ছে। যে টাকা এসেছে তা আমরা সময় মতো খরচ করতে পারব।’’

মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সভাধিপতি রুবিয়া সুলতানা বলেন, ‘‘প্রশাসনিক আধিকারিকদের নিয়ে আমরা সেই টাকা খরচের জন্য কাজ শুরু করেছি। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের কাছ থেকে যেমন প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে, তেমনই স্থানীয়দের চাহিদা মেনেও প্রকল্প করা হচ্ছে। সেই মতো পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের টাকা খরচ করার প্রক্রিয়া শুরু করেছি। লোকসভা নির্বাচন ঘোষণার আগেই আমরা সে সব টাকা খরচ করতে পারব।’’ তাঁর দাবি, ‘‘জেলা পরিষদ যেমন অর্থ খরচ করছে, তেমনই গ্রাম পঞ্চায়েত বা পঞ্চায়েত সমিতিকেও অর্থ খরচের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে বলা হয়েছে। তাঁরাও কাজ করছেন।’’

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলার ২৫০টি গ্রাম পঞ্চায়েত, ২৬টি পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলা পরিষদ মিলিয়ে আগের প্রায় প্রায় একশো কোটি টাকা ছিল। পুজোর সময়ে আরও প্রায় একশো কোটি টাকা এসেছে। জেলা পরিষদের এক সদস্য জানান, আমরাও চাই ভোটের আগে জেলা জুড়ে কাজ হোক। সেই মতো প্রকল্পের সিদ্ধান্ত নিয়ে টাকা খরচের যাবতীয় কাজ শুরু হয়েছে।

এর আগে সাগরদিঘি বিধানসভার উপ নির্বাচনের আগে পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের টাকা খরচ করতে গিয়ে জেলা পরিষদ থেকে শুরু করে পঞ্চায়েত সমিতি এবং একাধিক গ্রাম পঞ্চায়েতকে হিমসিম খেতে হয়েছিল। সে সময় জেলাশাসক বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলা পরিষদের কর্তাদের ডেকে দ্রুত টাকা খরচ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এবারে মাস তিনেক হল ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের নতুন বোর্ড গঠন হয়েছে। কিছু কিছু জায়গায় ধীর গতিতে কাজ হচ্ছে বলে পঞ্চায়েত সূত্রে খবর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE