×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

মদ খাইয়ে শ্বাসরোধ করে খুন

নিজস্ব সংবাদদাতা 
নওদা ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ০২:৫২
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ঝামেলা মিটিয়ে নেওয়ার অছিলায় ডেকে এনেই খুন করা হয়েছে তন্ময়কে। এমনটাই দাবি মৃতের আত্মীয়দের। নওদার সর্বাঙ্গপুর গ্রামের ওই ঘটনার পর দশ দিন কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত ধোঁয়াশা কাটেনি। যদিও মৃতের পরিবারের লোকেদের দাবি মৃতের আত্মীয় জয়দেব মণ্ডলের দাবি, ‘‘অতিরিক্ত মদ্যপান করানোর পর শ্বাসরোধ করে খুন করে নদীর জলে ফেলে দেওয়া হয় তন্ময়কে।’’ তন্ময়ের গালে আঘাতের চিহ্ন দেখে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান তাকে মারধরও করা হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার কে শবরী রাজকুমার বলেন, ‘‘মূল অভিযুক্ত পিন্টু বিশ্বাসকে জিজ্ঞাসাবাদ করে খুনের প্রকৃত কারণ জানার চেষ্টা চলছে।’’

গত ৮ জানুয়ারি শুক্রবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন নওদার সর্বাঙ্গপুরের বাসিন্দা পেশায় টোটো চালক বছর ত্রিশের তন্ময়। তার এক সপ্তাহ পর শুক্রবার নদিয়ার রামনগর ঘাট এলাকা থেকে তন্ময়ের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। প্রথমে তন্ময়কে অপহরণের অভিযোগ তুলে নওদা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তন্ময়ের পরিবারের লোকেরা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতারের পর আদালতের নির্দেশে পুলিশ হেপাজতে রয়েছে সে। মৃতদেহ উদ্ধারের পর খুনের মামলা যোগ হয়েছে। মৃতের পরিবারের লোকেদের অভিযোগ তন্ময়ের স্ত্রীর যোগসাজশেই পিন্টু তন্ময়কে খুন করেছে। তন্ময়ের স্ত্রীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রবিবার তাকে আদালতে তোলা হয়।

পুলিশের দাবি, এখনও পর্যন্ত খুনের কথা স্বীকার করেনি অভিযুক্ত পিন্টু।

Advertisement
Advertisement