×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মে ২০২১ ই-পেপার

সব বুথে প্রার্থী দেবে বিজেপি

নিজস্ব সংবাদদাতা
শিলিগুড়ি ০৩ এপ্রিল ২০১৭ ০২:১৭
মঞ্চে: শিলিগুড়িতে সভায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার। ছবি: বিশ্বরূপ বসাক

মঞ্চে: শিলিগুড়িতে সভায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার। ছবি: বিশ্বরূপ বসাক

পঞ্চায়েত ভোটে সব বুথে প্রার্থী দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বিজেপি। রবিবার শিলিগুড়িতে বিজেপির উত্তরবঙ্গের কোর কমিটির বৈঠকে দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ নির্দেশ দিয়েছেন সব বুথে অন্তত তিনজন সক্রিয় কর্মীর নাম বাছাই করে রাজ্য নেতৃত্বকে পাঠাতে। কোনও বুথে প্রার্থী হওয়ার উপযুক্ত কেউ না থাকলে এখন থেকে কাউকে চিহ্নিত করতে হবে বলেও দলের জেলা নেতাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আগামী বছরের গোড়াতেই রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোট হতে পারে বলে ধরে নিয়ে প্রস্তুতি শুরু করেছে বিজেপি। তার আগে পাহাড়েও পুরসভা ভোট রয়েছে। সেই ভোটেও বিজেপির প্রতীকে প্রার্থী থাকবে বলে দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন। পাহাড়ে মোর্চার সঙ্গে বিজেপির জোট রয়েছে। কত আসনে মোর্চা লড়বে এবং কটি আসবে বিজেপির প্রার্থী থাকবে তা দলের দার্জিলিঙের সাংসদ সুরেন্দ্র সিংহ অহলুওয়ালিয়া আলোচনা করবেন। তবে মোর্চা জোট সঙ্গী হলেও এ দিন দিলীপবাবু ফের জানিয়ে দিয়েছেন রাজ্য বিজেপি বাংলা ভাগের বিরুদ্ধে।

গত লোকসভা ভোটে রাজ্যে ২টি আসন পেয়েছিল বিজেপি। তার পরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে পুরসভা-সহ পঞ্চায়েতের বেশ কিছু উপ নির্বাচনেও দল জেতে। সে সবই ‘মোদী-হাওয়া’য় ভর করে বলে মেনে নিয়েছেন দিলীপবাবু। রবিবার বৈঠকের পরে দিলীপবাবু বলেন, ‘‘রাজ্যের সব বুথে বিজেপির প্রতিনিধি থাকবে। পঞ্চায়েত ভোট হোক পুরসভা সর্বত্র আমরা লড়ব।’’

Advertisement

আগামী ৬ এপ্রিল থেকে সব বুথে দলের পতাকা লাগানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। দলের নেতাদের দাবি, বহু বুথেই সক্রিয় কর্মী নেই। সে সব বুথেও যদি দলের পতাকা থাকে তাহলে সেখানকার বাসিন্দাদের কাছে দলের উপস্থিতিটা অন্তত জানানো যাবে। এ দিন বিকেলে প্রধাননগরে জনসভাও করেছেন দিলীপবাবু। জনসভায় নানা দল থেকে কর্মী-সমর্থকরা বিজেপিতে যোগ দেন।

জনসভায় পাহাড় প্রসঙ্গ তুলে মুখ্যমন্ত্রীর সফরকে কটাক্ষও করতেও ছাড়েননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি। দিলীপবাবু বলেন, ‘‘উনি পাহাড়ে এসে বিভাজনের রাজনীতি করছেন। বিমল গুরুঙ্গকে দুর্বল করতে গিয়ে গোটা পাহাড়েই বিভেদের রাজনীতি শুরু করে দিয়েছেন।’’ সম্প্রতি গুরুঙ্গ দিল্লি সফর এসে দাবি করেছেন গোর্খাল্যান্ড নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন। সে বিষয়ে দিলীপবাবু মন্তব্য ‘‘দলের কেন্দ্রীয় নেতারা এমন কিছু বলেছেন বলে জানি না।’’

Advertisement