Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পুলিশের সঙ্গে দিনভর লুকোচুরি বিজেপি-র

শহরে মিছিলের খবর পেয়ে দার্জিলিং মোড়, চেকপোস্ট, ভেনাস মোড় পানিট্যাঙ্কি মোড়ের কাছে অপেক্ষায় ছিল পুলিশ।

সংঘর্ষ: শিলিগুড়িতে গ্রেফতার করা হচ্ছে বিজেপি নেতা-কর্মীদের। রবিবার। নিজস্ব চিত্র

সংঘর্ষ: শিলিগুড়িতে গ্রেফতার করা হচ্ছে বিজেপি নেতা-কর্মীদের। রবিবার। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
শিলিগুড়ি শেষ আপডেট: ০৪ মার্চ ২০১৯ ০৫:২৮
Share: Save:

উত্তরবঙ্গের অন্য প্রান্তের মতো গণ্ডগোল না হলেও, রবিবার সকাল থেকেই শিলিগুড়িতে বিজেপির সংকল্প বাইক মিছিল ঘিরে চলল পুলিশের সঙ্গে বিজেপি সমর্থকদের লুকোচুরি। রাজপথের গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলিতে নাকা তৈরি করে যখন বাইক মিছিলের অপেক্ষায় পুলিশ, বিজেপির সঙ্কল্প কর্মসূচি পালনের চেষ্টা হল অলিগলিতে। দুপুরে দার্জিলিং জেলা (সমতল) সভাপতি অভিজিৎ রায়চৌধুরী সহ মোট ১১০ জন গ্রেফতার হন শিলিগুড়ি এবং শহরতলি এলাকায়। পরে প্রতিবাদে শিলিগুড়ি থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপির নেতাকর্মীরা। মোটের উপর সব জায়গাতেই বিজেপির এই মিছিল আটকানোর চেষ্টা করেছে পুলিশ। ধরা পর বিজেপি কর্মীদের পরে ব্যক্তিগত মুচলেকায় ছাড়া হয়েছে।

এ দিন সমতলে বিজেপির একটিই বাইক মিছিল হওয়ার কথা ছিল। খড়িবাড়ি থেকে নকশালবাড়ি মাটিগাড়া হয়ে তা দার্জিলিং মোড় দিয়ে আসার কথা ছিল বাঘাযতীন পার্কে। বিভিন্ন এলাকা থেকে তাতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল দলীয় সমর্থকদের। কিন্তু মিছিলের অনুমোদন ছিল না বলে সকাল থেকেই খড়িবাড়ি এবং নকশালবাড়ি এলাকায় বাইক মিছিল আটকাতে শুরু করে পুলিশ। মাটিগাড়া এবং বাগডোগরা থানা এলাকাগুলিতে নাকা বসিয়ে। সব জায়গাতেই বাইকের কাগজপত্র চেকিং শুরু করে পুলিশ।

মাটিগাড়া থানার পরিবহন নগরে মিছিল আটকানো হয়। ফলে শহরতলিতে প্রথমেই মার খেয়ে যায় সঙ্কল্প কর্মসূচি। নকশালবাড়ি থানা এলাকায় এলাকায় ১৫ জন বিজেপি সমর্থককে গ্রেফতার করা হয়। তারপর হঠাৎই দলের কর্মসূচি পাল্টে ফেলা হয়। নির্ধারিত জায়গাগুলিতে থেকে না বেরিয়ে নতুন নতুন জায়গায় জমায়েত হয়ে রাজপথ এড়িয়ে বিভিন্ন জায়গা দিয়ে অলিগলিতে বাইক মিছিল শুরু করে দেয় সমর্থকরা। পুলিশের সঙ্গে শুরু হয়ে যায় লুকোচুরি খেলা। যদিও খবর পেয়েই পুলিশ সেই সমস্ত জায়গায় পৌঁছে তাঁদের পথ আটকায়।

শহরে মিছিলের খবর পেয়ে দার্জিলিং মোড়, চেকপোস্ট, ভেনাস মোড় পানিট্যাঙ্কি মোড়ের কাছে অপেক্ষায় ছিল পুলিশ। কিন্তু ততক্ষণে বিজেপি নেতারা রুট পাল্টে ফেলেছেন। পানিট্যাঙ্কি মোড়ে মিছিলের অপেক্ষা করছিল পুলিশ। কিন্তু আশ্রমপাড়ায় জেলা সভাপতি অভিজিৎ রায়চৌধুরীর বাড়ির সামনে থেকে একটি মিছিল বার হয়ে সেবক রোডে না উঠে স্বামীজি মোড়, খেলাঘর মোড় হয়ে বাঘাযতীন পার্কের দিকে আসছিল। তবে তার আগে পথেই পাকুড়তলা মোড়ের কাছে তাদের পথ আটকায় পুলিশ। কিছুটা বাদানুবাদের পর অভিজিৎ এবং ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কাউন্সিলর খুসবু মিত্তাল সহ বেশ কিছু কর্মী সমর্থককে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার প্রতিবাদে প্রথমে আমতলা মোড়ে রাস্তায় বসে পড়েন বেশ কিছু কর্মী সমর্থক।

পরে জেলার সাধারণ সম্পাদক কানহাইয়া কুমারের নেতৃত্বে শিলিগুড়ি থানায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে বিজেপি সমর্থকরা। উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সময় কেন এই কর্মসূচি? বিজেপির জেলা সভাপতি অভিজিৎবাবু বলেন, ‘‘দেশের মানুষের বড় ভরসা নরেন্দ্র মোদী। পাকিস্তান থেকে উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে ফিরিয়ে আনার হয়েছে। তাই রবিবার মাইক ছাড়াই এই সংকল্প মিছিল করা হয়েছিল। বেশিরভাগ এলাকায় আমাদের পথ আটকে দেয় পুলিশ। তাতে বিজেপিকে দমানো যাবে না।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE