Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
Plasma

নয়া পদ্ধতিতে প্লাজ়মা সংগ্রহ

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বালুরঘাট শেষ আপডেট: ২৮ অগস্ট ২০২০ ০৩:১৭
Share: Save:

প্লাজ়মা থেরাপির মাধ্যমে উত্তরবঙ্গে প্রথম দক্ষিণ দিনাজপুরে করোনা রোগীর চিকিৎসা শুরু হতে চলেছে। রাজ্য সরকারের ‘স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর’ (এসওপি) পেয়ে বুধবার বালুরঘাট হাসপাতালের চিকিৎসক ও সিনিয়র নার্সদের নিয়ে বৈঠক করেন মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সুকুমার দে। রক্ত থেকে প্লাজ়মা পৃথকীকরণ ও সংরক্ষণের ব্যবস্থা বালুরঘাট হাসপাতালে রয়েছে। বৈঠকের পরেই প্লাজ়মা দানে এগিয়ে আসেন করোনা-জয়ী তথা জেলা হাসপাতালের ব্লাডব্যাঙ্কের মেডিক্যাল অফিসার (এমও) রোমিত দে। বৃহস্পতিবার তিনিই জেলায় প্রথম প্লাজ়মা দান করেন। জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই রক্ত থেকে প্লাজ়মা পৃথক করে সংরক্ষণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

Advertisement

সুকুমার জানান, রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী প্লাজ়মা থেরাপির মাধ্যমে করোনা রোগীর চিকিৎসা করা হবে। এক মাস আগে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন রোমিত। এ দিন তিনি প্লাজ়মা দান করেন। স্বাস্থ্যকর্তা জানান, কুশমণ্ডির ৩ জন এবং হরিরামপুরের ২ জন করোনা-জয়ী স্বাস্থ্যকর্মী প্লাজ়মা দিতে রাজি হয়েছেন। বালুরঘাট কোভিড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত সঙ্কটজনক রোগীদের প্লাজ়মা থেরাপি করে সুস্থ করে তোলার প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানান সুকুমার।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, এ দিন জেলায় নতুন করে ৬২ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এরমধ্যে বালুরঘাট শহরে সংক্রমিতের সংখ্যা ১৩। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার পেরিয়ে গেল।

মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন, এক মাস আগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া কারও প্লাজ়মা নেওয়ার নিয়ম। তত দিনে তাঁর শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে যায়। অন্য চিকিৎসায় কাজ হচ্ছে না, এমন গুরুতর করোনা রোগীদের প্লাজ়মা থেরাপি দেওয়া হলে তাঁদের অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

Advertisement

এ দিন ব্লাডব্যাঙ্কের এমও রোমিত বলেন, ‘‘আমার প্লাজ়মা থেকে কেউ সুস্থ হলে ভাল লাগবে।’’

(জরুরি ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য কয়েকটি বিশেষ হেল্পলাইন চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এই হেল্পলাইন নম্বরগুলিতে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা নিয়ে সহায়তা মিলবে। পাশাপাশি থাকছে একটি সার্বিক হেল্পলাইন নম্বরও।

• সার্বিক হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২
• টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১
• কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.