Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

যন্ত্রই কি দাম কমিয়ে দিচ্ছে চা পাতার

কাঁচা চা পাতা বিক্রির জন্য প্রতিমাসেই কেজি প্রতি ন্যূনতম দাম বেঁধে দেয় টি বোর্ড। ক্ষুদ্র চা চাষিদের অভিযোগ, সেই বেঁধে দেওয়া দামের থেকে অনেক কমে কাঁচা পাতা কিনছেন বটলিফ কারখানার মালিকরা। ফলে বড় ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে তাঁদের। বটলিফ কারখানার মালিকদের অভিযোগ, পাতার গুণগত মান কমে যাওয়াতেই দাম কমছে। অন্য জেলাগুলিতে তো এই সমস্যা রয়েইছে, তবে জলপাইগুড়িতে সঙ্কট সম্ভবত সব থেকে বেশি। প্রশ্ন উঠেছে, পাতার দাম কমে যাওয়ার জন্য কি প্রধানত দায়ী মেশিনের ব্যবহার? খোঁজ নিলেন শুভঙ্কর চক্রবর্তীটি বোর্ডের তথ্য বলছে উত্তরবঙ্গে চায়ের বার্ষিক গড় উৎপাদন ৩৮ কোটি কেজি। যার মধ্যে ক্ষুদ্র চা বাগানের উৎপাদন ২১ কোটি কেজি। অর্থাৎ, মোট চা উৎপাদনের ৫৬% ক্ষুদ্র চা বাগানগুলির দখলে।   

হাতে: শতাব্দী প্রাচীন এই পদ্ধতিতেই তোলা হয় দু’টি পাতা একটি কুঁড়ি।

হাতে: শতাব্দী প্রাচীন এই পদ্ধতিতেই তোলা হয় দু’টি পাতা একটি কুঁড়ি।

শেষ আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৫৩
Share: Save:

• উত্তরবঙ্গে কত ক্ষুদ্র চা চাষি আছেন?

Advertisement

টি বোর্ড সমস্ত ক্ষুদ্র চাষিকে এখনও চিহ্নিত করে উঠতে পারেনি। তবে বিভিন্ন সংগঠনের তথ্য অনুসারে এই সংখ্যা ৫০ হাজারেরও বেশি। টি বোর্ড এখন পর্যন্ত চিহ্নিত করেছে প্রায় ৩৪ হাজার চাষিকে।

• উত্তরবঙ্গের কোন কোন জেলায় ক্ষুদ্র চা বাগান আছে?

কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিং, কালিম্পং ও উত্তর দিনাজপুর— এই ছয় জেলাতেই কম-বেশি ছোট চা বাগান আছে। জলপাইগুড়ি জেলাতেই সব থেকে বেশি ক্ষুদ্র চা চাষি আছেন (প্রায় ২৫ হাজার)।

Advertisement

• উত্তরবঙ্গে চায়ের উৎপাদনে ক্ষুদ্র চাষিদের ভূমিকা কতটা?

টি বোর্ডের তথ্য বলছে উত্তরবঙ্গে চায়ের বার্ষিক গড় উৎপাদন ৩৮ কোটি কেজি। যার মধ্যে ক্ষুদ্র চা বাগানের উৎপাদন ২১ কোটি কেজি। অর্থাৎ, মোট চা উৎপাদনের ৫৬% ক্ষুদ্র চা বাগানগুলির দখলে।

• তা হলে ক্ষুদ্র চাষিরা কেন মেশিন ব্যবহার করছেন?

চাষিদের একাংশের বক্তব্য, হাতে তোলার চাইতে মেশিনে পাতা তোলার খরচ অর্ধেকেরও কম। হাতে পাতা তুলতে কেজি প্রতি খরচ প্রায় ৭ টাকা। সেখানে মেশিনে কেজি প্রতি খরচের পরিমাণ ৩ টাকা। মেশিনে কম সময়ে অনেক বেশি পাতা তোলা যায়। শ্রমিকও অনেক কম লাগে।

• কত শতাংশ ক্ষুদ্র চাষি মেশিন ব্যবহার করেন?

কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান স্মল টি গ্রোয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন এবং টি বোর্ডের তথ্য বলছে, উত্তরবঙ্গে প্রায় ৯০% চাষি মেশিন ব্যবহার করে চা পাতা তুলছে।

• টি বোর্ড ঘোষিত কাঁচা চা পাতার প্রতি কেজির ন্যূনতম দাম কত?

সেপ্টেম্বর—

কোচবিহার: ১৩.০১ টাকা

জলপাইগুড়ি: ১৩.৬৫ টাকা

দার্জিলিং (সমতল): ১২.৮৯ টাকা

উত্তর দিনাজপুর: ১২.৪৮ টাকা

• কত পাচ্ছেন চাষিরা?

কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান স্মল টি গ্রোয়ার্স অ্যাসোসিয়েশেনর কর্তাদের দাবি, কেজি প্রতি গড়ে ১০ টাকা করে দাম পাচ্ছেন তাঁরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.