Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২
Cooch Behar Medical College

কোচবিহার মেডিক্যালে রোগী মৃত্যুর ঘটনায় অভিযোগ পরিবারের, পাল্টা অবস্থান বিক্ষোভে স্বাস্থ্যকর্মীরা

পরিষেবা দেওয়া সত্ত্বেও রোগীর পরিবারের লোকজন মিথ্যা অভিযোগ করছে বলে অভিযোগ জানিয়ে অবস্থান বিক্ষোভে শামিল হন হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীরা।

পাল্টা অবস্থানে স্বাস্থ্যকর্মীরা

পাল্টা অবস্থানে স্বাস্থ্যকর্মীরা নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কোচবিহার শেষ আপডেট: ২৩ জুন ২০২১ ১৯:২৬
Share: Save:

কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজে রোগী মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করল রোগীর পরিবার। এই ঘটনায় মেডিক্যাল সুপারিন্টেন্ডেন্ট কাম ভাইস প্রিন্সিপ্যাল (এমএসভিপি)-র কাছে অভিযোগ জানিয়ে অবস্থান বিক্ষোভে শামিল হন হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীরাও। তাঁদের অভিযোগ, সব পরিষেবা দেওয়া সত্ত্বেও রোগীর পরিবারের লোকজন মিথ্যা অভিযোগ করে তাঁদের বদনাম করার চেষ্টা করছে। এই ঘটনায় বিশৃঙ্খলা ছ়ড়িয়েছে হাসপাতাল চত্বরে।

Advertisement

গত রবিবার কোভিড উপসর্গ নিয়ে কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয় কোচবিহারের কলাবাগান এলাকার বাসিন্দা মনোজ ওঝা (২৮)-কে। তাঁর প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট থাকায় তাঁকে অক্সিজেন দেওয়া হয়। পরিবারের অভিযোগ, মঙ্গলবার ভোর রাতে রোগীর অক্সিজেন শেষ হয়ে গেলেও অক্সিজেন পাল্টে দেওয়ার জন্য কোনও স্বাস্থ্যকর্মী ছিল না। ফলে রোগীর মৃত্যু হয়। রোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে ঘটনার তদন্তের দাবিতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়।

মনোজের কাকা সংকল্প ওঝা বলেন, ‘‘এমএসভিপি-র কাছে অভিযোগ জানাতে গেলে তিনি কোনও সহযোগিতা করেননি। মনোজকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর থেকে তাঁর কী কী চিকিৎসা হয়েছিল সেই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি রেগে যান এবং বলেন এই সমস্ত তথ্য আমরা দিই না। তথ্য জানতে হলে আরটিআই করতে হবে অথবা আদালত থেকে অনুমতি নিতে হবে।’’ তাঁর আরও অভিযোগ, হাসপাতালে ভর্তির সময় থেকে শুরু করে বিভিন্ন সময়ে রোগীকে অক্সিজেন লাগিয়ে দেওয়ার জন্য স্বাস্থ্যকর্মীরা টাকার দাবি করে। এমনকি কয়েক জন রোগীকে নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়ারও প্রস্তাব দেয়।

এই প্রসঙ্গে এমএসভিপি রাজীব প্রসাদ বলেন, ‘‘স্বাস্থ্যকর্মী এবং রোগীর পরিবার উভয় পক্ষ থেকেই আমার কাছে অভিযোগ জমা পড়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.