×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

কাল অভিযান সামলাতে কি নীল রং

কৌশিক চৌধুরী
শিলিগুড়ি ০৬ ডিসেম্বর ২০২০ ০৪:৪৩
রংবদল: নবান্ন অভিযানে ছিল বেগনি রং। কাল এ ভাবেই নীল রঙে অভিযান সামলাবে পুলিশ, তেমনই জল্পনা। ফাইল চিত্র।

রংবদল: নবান্ন অভিযানে ছিল বেগনি রং। কাল এ ভাবেই নীল রঙে অভিযান সামলাবে পুলিশ, তেমনই জল্পনা। ফাইল চিত্র।

নবান্নের পরে উত্তরকন্যা। বেগনির পরে এ বার কি তবে নীল?

নবান্ন অভিযানকে ছত্রভঙ্গ করতে বেগনি জল ব্যবহার করেছিল পুলিশ। উত্তরকন্যা অভিযানেও বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের প্রয়োজনে ছত্রভঙ্গ করতে শিলিগুড়ির পুলিশ জলকামান থেকে নীল রঙের জল ব্যবহার করতে পারে বলে সূত্রের খবর।

পুলিশ সূত্রের খবর, বিজেপির অভিযানকে এ বারে পুলিশ গুরুত্ব দিয়েই দেখছে। আট জেলা থেকে লোক আনতে চাইছেন বিজেপি নেতৃত্ব। ফলে ভিড় ভালই হতে পারে বলে আন্দাজ। তাই বাইরের জেলা থেকে অন্তত ৩ হাজার পুলিশ কর্মীকে রবিবারের মধ্যে শিলিগুড়ি আনা হচ্ছে। মাল্লাগুড়ির সদর দফতরের মাঠে গত তিনদিন ধরে বড় হাঙ্গামা মোকাবিলার ঢঙে পুলিশকর্মীদের প্রশিক্ষণ চলছে। পুলিশ সূত্রে খবর, সেখানেই জলকামান এবং নীল রঙের জল তৈরি রাখতে বলা হয়েছে। শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার ত্রিপুরারি অথর্ব বলেছেন, ‘‘একটি রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি ঘিরে যা যা প্রস্তুতি নেওয়ার, সবই থাকবে। জলকামানও ফোর্সের সঙ্গে থাকছে।’’

Advertisement

পাহাড়ে আলাদা রাজ্যের আন্দোলন যখন শুরু হয়, জলকামান এবং ট্যাঙ্কের মতো দেখতে গাড়ি সেই সময়ে এসেছিল। সেই সময় প্রায়শই জাতীয় সড়ক থেকে অবরোধ, বিক্ষোভ সরাতে সেগুলি ব্যবহারের জন্য নেওয়া হয়। এখন যে কোনও বড় রাজনৈতিক কর্মসূচিতে জলকামানটিই খালি রাখা হয়। এ বারই প্রথম তাতে নীল রঙের জল রাখা হতে পারে।

নবান্ন অভিযানে বেগনি রঙের জলে হতচকিত হয়ে যান আন্দোলনকারীরা। পরে তাঁরা দাবি করেন, রঙের সঙ্গে বিষাক্ত রাসায়নিকও ব্যবহার করা হয়েছিল। যদিও বিজেপির এই দাবি খারিজ করে দেয় পুলিশ-প্রশাসন। পুলিশের তরফে বলা হয়েছিল, রঙিন জল ব্যবহার নতুন কিছু নয়। এই ভাবে অনেক জায়গাতেই আন্দোলন রোখে পুলিশ। এ বারে শিলিগুড়িতে শরীরের ক্ষতি করবে না এমন রংই ব্যবহার করতে পারে পুলিশ।

সূত্রের খবর, সাধারণ খাবারের বা জামা কামাপড়ের নীল রং ব্যবহার করা হতে পারে। এর মূল উদ্দেশ্য, বিক্ষোভকারী বা আন্দোলনকারীদের চিহ্নিত করা, বলছে পুলিশ সূত্র।

আগামীকাল, সোমবার সকাল থেকে বিজেপির জমায়েত শুরু হবে। পরে হাজার হাজার কর্মী নিয়ে নেতাদের মিছিল চলার কথা উত্তরকন্যার দিকে। এই পথেই থাকবে জলকামান।

Advertisement