Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

দেবপ্রসাদের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সৌরভও

যদিও এ দিনের অনুষ্ঠানটি অবশ্য অরাজনৈতিক ছিল৷ জলপাইগুড়ির প্রথম শহিদ বীরেন্দ্রনাথ দত্তগুপ্তকে তাঁর জন্মতিথিতে শ্রদ্ধা জানাতে জলপাইগুড়ি জেলা

নিজস্ব সংবাদদাতা
জলপাইগুড়ি ২১ জুন ২০১৭ ০২:৫০
Save
Something isn't right! Please refresh.
সাক্ষাৎ: জেলা পরিষদ হলের অনুষ্ঠানে মুখোমুখি বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী ও কংগ্রেস নেতা দেবপ্রসাদ রায়। নিজস্ব চিত্র

সাক্ষাৎ: জেলা পরিষদ হলের অনুষ্ঠানে মুখোমুখি বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী ও কংগ্রেস নেতা দেবপ্রসাদ রায়। নিজস্ব চিত্র

Popup Close

কংগ্রেস নেতা দেবপ্রসাদ রায়ের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে একাধিক তৃণমূল নেতার উপস্থিতিতে ফের একবার জোর জল্পনা শুরু হল জলপাইগুড়ির রাজনৈতিক মহলে৷ যদিও দেবপ্রসাদবাবুর দাবি, ধর্মনিরপেক্ষতার প্রশ্নেই তিনি রাজ্যের শাসকদলের ওই নেতাদের অনুষ্ঠানে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন৷

মাস দুয়েক আগে বেলাকোবার কেবলপাড়া হাই স্কুলে তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে আয়োজিত একটি বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে শাসক দলের বিধায়ক খগেশ্বর রায়ের সঙ্গে একই মঞ্চে দেখা গিয়েছিল দেবপ্রসাদ রায়কে৷ যা নিয়ে সেই সময়েও রাজনৈতিক মহলে জোড় জল্পনা হয়৷ ওই ঘটনার পর এ দিন জলপাইগুড়িতে দেবপ্রসাদবাবুর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে দেখা গেল এসজেডিএ-র চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী সহ দলের এক ঝাঁক নেতা-কর্মীকে৷

যদিও এ দিনের অনুষ্ঠানটি অবশ্য অরাজনৈতিক ছিল৷ জলপাইগুড়ির প্রথম শহিদ বীরেন্দ্রনাথ দত্তগুপ্তকে তাঁর জন্মতিথিতে শ্রদ্ধা জানাতে জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদ হলে অনুষ্ঠানটির অন্যতম উদ্যোক্তা ছিল অগস্ট বিপ্লব উদযাপন কমিটি৷ যে কমিটির আহ্বায়ক দেবপ্রসাদবাবু নিজেই৷ ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সৌরভকে একাধিকবার দেবপ্রসাদবাবুর প্রশংসা করতে শোনা যায়৷ তিনি বলেন, ‘‘ছাত্র আন্দোলনের সময় মিঠুদা অর্থাৎ দেবপ্রসাদ রায়ের বক্তব্য শোনার জন্য আমরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতাম৷ এবং পরবর্তী রাজনীতিতেও তার কাছ থেকে অনেক পরামর্শ পেয়েছি৷’’ শুধু তাই নয়, অনুষ্ঠান থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সৌরভ বলেন, ‘‘আমি দলের অনুমতি নিয়েই এই অনুষ্ঠানে এসেছি৷ মিঠুদা আমায় যখন ডাকবেন, তখনই তার অনুষ্ঠানে যাব৷’’ স্বাভাবিক ভাবেই তার এই মন্তব্যকে ঘিরেও এদিন রাজনৈতিক মহলে জল্পনা শুরু হয়েছে৷ যদিও বিষয়টিতে বতর্কের কিছু দেখছেন না দেবপ্রসাদবাবু৷ তাঁর কথায়, ধর্মনিরপেক্ষতার প্রশ্নেই এ দিনের অনুষ্ঠানের অতিথিদের আমন্ত্রণ জানান হয়েছিল৷ অন্য মানে নেই৷

Advertisement

এ দিকে, জেলা পরিষদ হলে এ দিনের অনুষ্ঠান শুরুর আগে গাঁধী মুর্তি থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়৷ জেলাপরিষদের শোভাযাত্রা পৌছানোর পর বীরেন্দ্রনাথ দত্তগুপ্তর আবক্ষ মুর্তিতে মাল্যদান করা হয়৷ অনুষ্ঠানে সৌরভ জানান, এসজেডিএ-এর অধীনে থাকা এলাকায় বিপ্লবীদের স্মৃতিসৌধগুলি নতুন করে সাজাবে তার দফতর৷ বীরেন্দ্রনাথ দত্তগুপ্তকে যাতে প্রতি বছর এভাবে স্মরম করা হয় এ দিন তার আহ্বান জানান দেবপ্রসাদবাবু৷ অনুষ্ঠানে আরও অনেক বিশিষ্ট ব্যাক্তি উপস্থিত ছিলেন৷



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement